ডিসিসি নির্বাচনের স্থগিতাদেশ মেয়াদ আরো ৩ মাস বাড়ল

ঢাকা সিটি করপোরেশনের (ডিসিসি) নির্বাচনের ওপর দেয়া স্থগিতাদেশের মেয়াদ আরো তিন মাস বাড়িয়েছে হাইকোর্ট।মঙ্গলবার এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ সময় বাড়ানোর এ আদেশ দেন।রিটের পক্ষে অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ আদালতে স্থগিতাদেশের মেয়াদ বৃদ্ধির আবেদন করেন।আইনজীবী মনজিল মোরসেদ বলেন, ভোটার তালিকা সংশোধন এবং সীমানা নির্ধারণসহ আদালতের দেয়া আদেশ নির্বাচন কমিশন এখনো সম্পন্ন করেনি।

তিনি বলেন, ‘আমরা সবাই নির্বাচন চাই। কিন্তু নির্বাচন কমিশন ডিসিসির এ নির্বাচন নিয়ে গড়িমসি করছে।’

গত ৮ অক্টোবর একই বেঞ্চ স্থগিতাদেশের মেয়াদ তিন মাস বৃদ্ধি করেন।
এ নিয়ে ডিসিসি নির্বাচনের ওপর স্থগিতাদেশের মেয়াদ তৃতীয় দফা বাড়ানো হলো।

গত ১৬ এপ্রিল হাইকোর্ট তিন মাসের জন্য এ নির্বাচন স্থগিত করে। এরপর গত ২৩ জুলাই ওই স্থগিতাদেশের মেয়াদ তিন মাসের জন্য বাড়ানো হয়।

এর আগে ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে ২৪ মে ভোট হওয়ার কথা ছিল।

গত এপ্রিলে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন (ডিসিসি) নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার এক সপ্তাহের মাথায় স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইনের কয়েকটি ধারা বাস্তবায়ন না করা পর্যন্ত ডিসিসি নির্বাচন স্থগিত করার জন্য একটি রিট আবেদন করে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ।

ওই আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে গত ১৬ এপ্রিল বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী ও জাহাঙ্গীর হোসেনের বেঞ্চ এক আদেশে ‘যত দ্রুত সম্ভব’ ঢাকার ওয়ার্ডগুলোর সীমানা নির্ধারণ করতে বলে।

একইসাথে নির্বাচনের তিন মাস আগ পর্যন্ত ভোটার তালিকা হালনাগাদ করতে বলা হয়। আইন অনুযায়ী, সব কাজ শেষ করে দ্রুত নির্বাচন করতে বলে আদালত।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।