পাটের গুদামে অগ্নিকান্ড - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

পাটের গুদামে অগ্নিকান্ড



নারায়ণগঞ্জ, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জে একটি পাটের গুদামে শনিবার সকাল ১০টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। আগুনে পুড়ে গেছে গোডাউনে থাকা বিপুল পরিমাণ পাট। পাটের মালিকের দাবি- গুদামের প্রায় ৪০ হাজার মণের বেশিরভাগই পুড়ে গেছে। এতে প্রায় কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। খবর- সিগারেট থেকে ৮নং গুদামে আগুনের সূত্রপাত। মুহূর্তের মধ্যে আগুন গুদামে থাকা পাটে ছড়িয়ে পড়ে। আগুনের শিখা উপর দিকে উঠতে থাকায় পুড়তে থাকে গুদামের টিনের চালও।

পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল এলাকায় বাংলাদেশ সমবায় শিল্প সংস্থার আওতাধীন বেশ কিছু গুদাম রয়েছে। এসব গুদামে বিভিন্ন ধরনের মালামাল মজুদ করে রাখা হয়। এরমধ্যে ৬টি গুদাম ভাড়া নেওয়া হয়েছে চাঁদপুরের উষা জুট মিলের পাটের জন্য। গুদামে পাট মজুদ করে পরে তা বান্ডিল করে বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হয়।

খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জের মণ্ডলপাড়া ও হাজীগঞ্জের ৩টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা শুরু করে।

৮নং গুদামের ইনচার্জ ও উষা জুট মিলের কর্মকর্তা রুহুল আমিন খান মুঠোফোনে জানান, গুদামে প্রায় ৪০ হাজার মণ পাট ছিলো। এখন প্রতিমণ পাট বিক্রি হয় ২ হাজার থেকে ২২শ’ টাকা করে।

রুহুলের আশঙ্কা আগুনে ও ফায়ার সার্ভিসের পানিতে গুদামে থাকা প্রায় সব পাট নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

নারায়ণগঞ্জ হাজীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আবদুর রাজ্জাক, “গুদামে নিয়মানুসারে পাট রাখা হয়নি। কারণ পাট রাখার ক্ষেত্রে চারদিকে ৩ থেকে ৪ ফুট খালি জায়গা রাখতে হয় যাতে করে আগুন ধরলে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ভেতরে প্রবেশ করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারে। খালি জায়গা না থাকাতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেগ পেতে হচ্ছে।”

ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনো নিরূপণ করা যায়নি।


পূর্বের সংবাদ