দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার কার্যালয় ঘিরে রেখেছে পুলিশ

কাওরান বাজারে দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার কার্যালয় বাড়তি নিরাপত্তার অজুহাতে ঘিরে রেখেছে পুলিশ। একইসঙ্গে পত্রিকাটির তেজাগাঁও ছাপাখানাতেও পুলিশ অবস্থান নিয়েছে। তবে পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ আরটিএনএন-কে বলেছেন, ‘সরকারের এই নিরাপত্তার কথা আমরা বিশ্বাস করি না।’ পত্রিকাটি সব ধরনের খারাপ পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে প্রস্তুত রয়েছে বলেও তিনি জানান।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে জামায়াত নেতা কাদের মোল্লার যাবজ্জীবন সাজা দেয়ার পর তা প্রত্যাখান করে ফাসিঁর দাবিতে গেলো শুক্রবার শাহবাগ চত্ত্বরে সরকার সমর্থক ব্লগারও একটিভিস্টদের সমাবেশে দৈনিক আমার দেশ, নয়া দিগন্ত, সংগ্রাম, দিগন্ত টেলিভিশন ও সোনার বাংলা ব্লগ বর্জন ও নিষিদ্ধের দাবি তোলা হয়।

সমাবেশের শুরুতে এসব পত্রিকা ও টেলিভিশনের সংবাদকর্মীদের চলে যেতে বলা হয়।

আর এরপরই দৈনিক আমার দেশ পত্রিকাটির কাওরান বাজার কার্যালয়ের সামনে রোববার বিকালে ১৭/১৮ জন পুলিশ অবস্থান নেয়।

আমার দেশ পত্রিকাটির সামনে থেকে আরটিএনএন ডটনেটের নিজস্ব প্রতিবেদক মাহফুজ সাদী বলেন, ভবনের নিচে ১৮ জনের মতো পোশাকধারী পুলিশ দেখা যাচ্ছে। বিকেল ৫টা থেকে তারা এখানে আছেন। বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা উৎকণ্ঠা নিয়ে সেখানে অপেক্ষা করছেন। পুলিশ সদস্যরা পত্রিকা ভবনটির মূল ফটকের পশ্চিম পাশে অবস্থান করছেন।সএছাড়া সন্ধ্যার দিকে বেশ কয়েকটি মিছিল আমার দেশের সামনে দিয়ে শাহবাগ চত্বরে গেছে। তবে পত্রিকাটি নিয়ে কোন উসকানিমূলক বক্তব্য শোনা যায়নি। তবে শাহবাগ চত্ত্বরে আজ সন্ধ্যায় ফের পত্রিকাগুলো নিষিদ্ধ ও বর্জনের তোলা হয়।

জামায়াত নেতা আবদুল কাদের মোল্লা ও কামরুজ্জামানের জাতীয় প্রেসক্লাবের সদস্যপদ বাতিলেরও আহ্বান জানানো হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।