অস্ত্রসহ জাবিতে ছাত্রলীগের ৩ কর্মী আটক

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন হলে তল্লাশি চালিয়ে তিন ছাত্রলীগ ক্যাডারকে বিদেশী পিস্তলসহ আটক করেছে পুলিশ। সোমবার সকাল সাতটার দিকে আশুলিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. বদরুল আলমের নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়। আটকরা হলেন- জাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেল গ্রুপের কর্মী ও মওলান ভাসানী হলের ইংরেজি বিভাগের মোরশেদুর রহমান (৩৮তম ব্যাচ) এবং ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের ইমন আহমেদ (৩৮তম ব্যাচ)। এছাড়া অপর ছাত্রলীগ কর্মী শহীদ রফিক জব্বার হলের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের মো. সিমান্ত আহমেদকেও (৪০ তম ব্যাচ) আটক করা হয়েছে । সে জাবি শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক মিথুন কুণ্ডু ও সভাপতি মাহমুদুর রহমান জনি গ্রুপের ছাত্রলীগ কর্মী।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ বদরুল আলম জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের থানায় নিয়ে আাস হয়েছে। পরে তাদের অস্ত্র মামলায় গ্রেফতার দেখানো হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন বলেন, “যারা হলে অস্ত্র রাখে তারা ছাত্র নামধারী সন্ত্রাসী তাদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।” গ্রেফতারকৃতদের ছাত্রলীগে অনুপ্রবেশকারী ও শিবির বলে অখ্যায়িত করেন তিনি ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ রফিক-জব্বার হলে তল্লাশি অভিযান চালানো হলে সেখান থেকে রামদা, কুড়াল, পাইপ, রড ও লাঠিসহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। পরে মওলানা ভাসানী হলে ১০৮ নম্বর রুমে তল্লাশি চালিয়ে সেখান থেকে হতে একটি বিদেশী পিস্তলসহ ছয় রাউন্ড গুলি ও বিপুল সংখ্যক দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে।

উল্লেখ্য, বাস থামানোকে কেন্দ্র করে রোববার রাত নয়টার বিশ্ববিদ্যালয়ে শহীদ রফিক জব্বার হল ও মওলানা ভাসানী হলের ছাত্রলীগের দুই প্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে ছাত্রলীগের ১০ কর্মী আহত হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।