রাজধানীতে টেলিভিশন বিস্ফোরনে ১ শিশু নিহত

রাজধানীর মিরপুরের এক বাসায় বিস্ফোরণের পর অগ্নিকাণ্ডে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে ওই পরিবারের আরো তিনজন।
পুলিশ ও অগ্নি নির্বাপক বাহিনী বলছে, টেলিভিশন বিস্ফোরিত হয়ে ওই বাসায় আগুন লাগে বলে তাদের ধারণা। বুধবার রাত ২টার দিকে মিরপুর ১৩ নম্বর সার্কেলের সি ব্লকের একটি একতলা বাসায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মারুফ হাসানের বয়স দুই বছর। তার বাবা মোতাহার আলী (৪০), মা জ্যোৎসনা বেগম (৩২) ও বড় বোন বৃষ্টিকে (১১) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রতিবেশীদের বরাত দিয়ে কাফরুল থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী জানান, বুধবার রাত ২টার দিকে ওই বাসার একটি কক্ষে বিকট বিস্ফেরণ ঘটে এবং আগুন লেগে যায়।

শব্দ পেয়ে আশেপাশের বাড়ির বাসিন্দারা ছুটে আসেন এবং মোতাহার আলী ও তার পরিবারের সদস্যদের হাসপাতালে নিয়ে যান। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোরের দিকে মারা যায় মারুফ।

পরিবারের বাকি সদস্যদেরও দেহের বিভিন্ন অংশ ঝলসে গেছে বলে ওসি জানান।

তিনি বলেন, “ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন, টেলিভিশন দেখার সময় কোনো গোলোযোগের কারণে সেটি বিস্ফোরিত হয়ে থাকতে পারে।”

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের দায়িত্বরত কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম জানান, রাতে খবর পেয়ে অগ্নি নির্বাপক কর্মীরা পৌঁছানোর আগেই আশেপাশের লোকজন আগুন নিভিয়ে ফেলতে সক্ষম হন।

“ঘরের প্রায় সব আসবাবপত্র পুড়ে গেছে। সবকিছু পরীক্ষা করে আমাদের মনে হয়েছে, কোনো কারণে টেলিভিশন বিস্ফোরিত হয়েই ঘরে আগুন লেগে যায়।”

ওসি জানান, মোতাহার আলী কাপড়ের ব্যবসা করতেন। তাদের গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে।

তার প্রতিবেশী সুলতান আহমেদ ঢাকা মেডিকেলে সাংবাদিকদের বলেন, রাতে বিকট বিস্ফোরণের পর ঘরে আগুন জ্বলেতে দেখে তারা মোতাহারের বাসায় এগিয়ে যান। পরে চারজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান তারা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।