আগাম জামিন পেলেন সংগ্রাম সম্পাদক

সুপ্রিম কোর্টের হাই কোর্ট বিভাগ দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক ও প্রকাশক আবুল আসাদকে ছয় সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছে।  দৈনিক আমার দেশ ‘বেআইনিভাবে’ নিজেদের প্রেসে ছাপানোর অভিযোগে সরকারের দেয়া মামলায় তাকে আগাম জামিন দেন বিভাগের বিচারক বোরহান উদ্দিন ও কে এম কামরুল কাদেরের যুগ্ম বেঞ্চ। বুধবার আবুল আসাদের পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট এজে মোহাম্মদ আলী।
এই একই মামলায় একই বেঞ্চ এর আগে জামিন দিয়েছিলেন দৈনিক আমার দেশে’র মালিক কোম্পানির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মাহমুদা বেগমকে। বেগম মাহমুদা আমার দেশ’র সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের মা।

দৈনিক সংগ্রামের ছাপাখানা- রাজধানীর মগবাজারস্থ আল-ফালাহ প্রিন্টিং প্রেস ‘বেআইনিভাবে’ আমার দেশ ছাপা এবং প্রকাশ, প্রদর্শন ও বিক্রির অভিযোগে ঢাকার সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট (প্রকাশনা) নাসরীন সুলতানা গত ১৪ এপ্রিল রমনা মডেল থানায় এই মামলাটি করেন।

প্রিন্টিং প্রেসেস অ্যান্ড পাবলিকেশনস (ডিক্লারেশন অ্যান্ড রেজিস্ট্রেশন) অ্যাক্ট ১৯৭৩ এর ৩২ ও ৩৩ ধারা অনুযায়ী এ মামলা করা হয়।

এই আইন অনুসারে, ভিন্ন কোনো ছাপাখানায় পত্রিকা ছাপতে সরকারের আগাম অনুমতি নেয়ার বিধান না থাকলেও ঢাকা জেলা প্রশাসন বলছে যে আমার দেশে’র নিজস্ব ছাপাখানা সরকার সীলগালা করে দেয়ার পর ভিন্ন ছাপাখানায় পত্রিকা ছাপতে অনুমতি নেয়নি পত্রিকা কর্তৃপক্ষ।

আমার দেশ কর্তৃপক্ষ বলছে, কোনো কারণে নিজস্ব ছাপাখানায় পত্রিকা ছাপতে না পারার ক্ষেত্রে আইনের দশম ধারার বিধান হচ্ছে অন্য ছাপাখানায় ছাপানোর বায়াত্তর ঘন্টার মধ্যে তা জেলা প্রশাসনকে জানানো। আমার দেশের তরফে তা ঢাকা জেলা প্রশাসককে জানানো হয়েছে, বলছে পত্রিকাটি।

এর আগে গত ১৩ এপ্রিল রাতে আল ফালাহ প্রিন্টিং প্রেসে অভিযান চালিয়ে দৈনিক আমার দেশ ছাপা বন্ধ করে দেয় পুলিশ। একইসঙ্গে ১৯ সংবাদকর্মীকে আটক করেন তারা।

প্রথম আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সাবকে চেয়ারম্যানের স্কাইপ কেলেঙ্কারি ফাঁস করার অভিযোগে দৈনিক আমার দেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে গত ১১ এপ্রিল গ্রেপ্তার করা হয়। ওইদিন রাতেই রাজধানীর তেজগাঁওয়ে পত্রিকাটির ছাপাখানা সিলগালা করে দেয় পুলিশ।

স্কাইপ যোগে আদালত বহির্ভূত এক ব্যক্তির সঙ্গে মামলার সম্ভাব্য রায় নিয়ে কথা বলার ওই কথোপকথন ফাঁস হয়ে গেলে ওই বিচারককে তার পূর্ববর্তী পদ- সুপ্রিম কোর্টের হাই কোর্ট বিভাগে ফেরত নেয়া হয়।

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।