সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো নিয়ন্ত্রনে সরকারের উদ্যোগ গ্রহন

অনলাইন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোয় যাতে আপত্তিকর কোনো বিষয় দেখা না যায় তা নিশ্চিতে বিশেষ প্রযুক্তি ব্যবহারের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। রোববার তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এ কথা জানান। মন্ত্রী জানান, এ প্রযুক্তি চালুর পর ফেসবুকের আপত্তিকর বিষয় বাদ দেয়া সহজ হবে। ফলে এ ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ করার প্রয়োজন হবে না।

তিনি জানান, আগামী দুই মাসের মধ্যে আপত্তিকর বিষয়গুলো আটকানোর প্রযুক্তিগত কাজ শুরু হবে।

ফেসবুক-টুইটারে আপত্তিকর বিষয় নিয়ন্ত্রণের পর বাংলাদেশে বন্ধ রাখা ইউটিউব খুলে দেয়া হবে বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী। ইসলাম ও হজরত মোহাম্মদকে অবমাননা করে নির্মিত একটি চলচ্চিত্রের ভিডিও ফুটেজ সরিয়ে নিতে চিঠি দেয়ার পরও কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় গত বছরের ১৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে ইউটিউব সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয় বিটিআরসি।

উল্লেখ্য, রামুর সহিংসতার ঘটনায় গঠিত বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি সম্প্রতি আদালতে দেয়া তাদের প্রতিবেদনে ফেসবুক-টুইটারের মতো সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোর ওপর নিয়ন্ত্রণ চালানোর সুপারিশ করে। এছাড়া বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ইসলামের নবী ও ইসলাম সম্পর্কে কটূক্তিকারীদের শনাক্তে গঠিত কমিটিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণের পক্ষে মত দেন।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।