আশুলিয়ায় শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে রণক্ষেত্র

নিরাপদ কর্ম পরিবেশ, বেতনভাতা বৃদ্ধি, শ্রমিকদের উপর নির্যাতন বন্ধ,বন্ধ থাকা তিন দিনের হাজিরাসহ বহিরাগত সন্ত্রাসী দিয়ে শ্রমিকদের মারধর করার প্রতিবাদে  ন্যূনতম বেতন ৮ হাজার টাকা নির্ধারণ করা ও নারী শ্রমিকদের যৌন নির্যাতন বন্ধসহ কয়েকটি দাবিতে আশুলিয়ার শিল্পাঞ্চলে বিক্ষোভ করছে শ্রমিকরা। সোমবার সকালে শিল্পাঞ্চল আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকার হামীম গ্রুপের শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে। ফলে হামীম গ্রুপসহ আশপাশের কারখানাগুলোর কর্তৃপক্ষ ছুটি ঘোষণা করেছে।

এ সময় শ্রমিকরা কারখানার পরিচালক আলতাব ও ব্যাবস্থাপক মাজহারুলের বিরুদ্ধে নারী শ্রমিকদের শ্লীলতহানির অভিযোগ এনে বিক্ষোভ ও মিছিল করতে থাকে। ফলে সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

শ্রমিকদের অভিযোগ, কারখানা কর্তৃপক্ষ কথায় কথায় শ্রমিকদের উপর নির্যাতন করে ও বহিরাগত সন্ত্রাসীদের দিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়।

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সড়ক অবরোধের এক পর্যায়ে শ্রমিকরা হামীম গ্রুপের কারখানার মূল ফটকে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে ভাঙচুরের চেষ্টা করলে পুলিশের সঙ্গে শ্রমিকদের সংঘর্ষ বাধে।

এ সময় পুলিশ জলকামান, টিয়ারশেল, রাবার বুলেট নিক্ষেপ ও লাঠিচার্জ করে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

পরে শ্রমিকরা শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন গলিতে অবস্থান নিয়ে পুলিশের উপর হামলা চালালে উভয় পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। ফলে এলাকাজুড়ে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। এতে পুলিশসহ শতাধিক শ্রমিক আহত হয়েছে।

এদিকে নিরপত্তার কারণে আশপাশের বেশ কয়েকটি পোশাক কারখানায় ছুটি ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হামীম গ্রুপসহ শিল্প এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ, আর্মড পুলিশ, এপিবিএন মোতায়েনের পাশাপাশি পুলিশের জলকামান, সাজোয়া জান ও র‍্যাবের টহল চলছে।

 


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।