কাদের মোল্লার দাফন সম্পন্ন: উপস্থিত হতে পারেনি তার পরিবারের সদস্যরা

কাত্তরের যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে ফাসি হওয়া কাদের মোল্লার লাশ দাফন করা হয়েছে ফরিদপুরের সদর উপজেলার ভাষানপুর ইউনিয়নের আমিরাবাদে তার গ্রামের বাড়িতে। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বৃহস্পতিবার রাত ১০টা ১ মিনিটে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়। এরপর কড়া পাহারায় ভোররাতের মধ্যেই লাশ নিয়ে যাওয়া হয় তার গ্রামের বাড়িতে। সেখানে কাদের মোল্লারইচ্ছা অনুযায়ী জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে শুক্রবার ভোররাত ৪টা ২০ মিনিটে দাফন করা হয়

কাদের মোল্লার পরিবারের পক্ষ থেকে তার লাশটি গ্রহণ করেন ছোট ভাই মাইনুদ্দিন মোল্লা ,  তবে এসময় পরিবারের অন্য সদস্যরা উপস্হিত ছিল না। তার কারণ তারা উপস্থিত থাকার সুযোগ পায়নি।   সদরপুরের ইউএনও লোকমান হোসেন লাশটি মাইনুদ্দিনের কাছে হস্তান্তর করেন। রাত সোয়া ৩টা দিকে কড়া পুলিশি প্রহরায় কাদের মোল্লার লাশবাহী অ্যাম্বুল্যান্স আমিরাবাদ গ্রামে পৌঁছায়। বাড়ির চারপাশ ঘিরে জোরদার করা হয় কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা।

কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এমন তড়িঘড়ি করেই রাতের অন্ধকারে দাফন করা হয়েছে বলে জানা যায়  এর আগে রাত সোয়া তিনটার দিকে তার মরদেহ ফরিদপুরে পৌঁছানোর পর পরই রাত ৪ টার দিকে জানাযা সম্পন্ন হয় বিপুল সংখ্যক আইন শৃভ্খলা বাহিনীর উপস্হিতিতে।

 

 

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।