চট্টগ্রামে অস্ত্রসহ ৫ শিবির ক্যাডার গ্রেফতারের সাথে ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে দৈনিক আজাদী পত্রিকা ও সিপ্লাস টিভি মনগড়া প্রতিবেদনে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

চট্টগ্রামে অস্ত্রসহ ৫ শিবির ক্যাডার গ্রেফতারের সাথে ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে দৈনিক আজাদী পত্রিকা ও সিপ্লাস টিভি মনগড়া প্রতিবেদনে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ



প্রেসবিজ্ঞপ্তি, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে দৈনিক আজাদী পত্রিকা,সিপ্লাস টিভি ‘চট্টগ্রামে অস্ত্রসহ ৫ শিবির ক্যাডার গ্রেফতার’ শীর্ষক বানোয়াট প্রতিবেদন মিথ্যাচার এবং ভিত্তিহীন বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর।

এক প্রতিবাদ বার্তায় ছাত্রশিবিরের চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর শাখার সভাপতি আ স ম রায়হান ও সেক্রেটারী হাসান ইলাহী বলেন, দৈনিক আজাদী পত্রিকা ও সিপ্লাস টিভি ভারসাম্যহীন বানোয়াট প্রতিবেদনকে সমৃদ্ধ করতে কোন তথ্য প্রমাণ ছাড়াই বিদ্বেষপ্রসূত বক্তব্য দিয়েছেন।

ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে এসব প্রতিবেদন এবং পুলিশ কর্মকর্তার দায়িত্বহীন বক্তব্য নিকৃষ্ট মিথ্যাচার। বরং কল্পনাপ্রসূত প্রতিবেদনে যুবলীগ চাঁদাবাজী সন্ত্রাসীদের সাথে ছাত্রশিবিরকে জড়ানোর অপচেষ্টা করা হয়েছে। আসলে বায়েজিদ থানার এই পুলিশ কর্মকর্তা ও দলীয় মনোভাবাপন্ন গণমাধ্যমগুলো এর আগেও ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে অপপ্রচার চালিয়েছে যা সময়ের ব্যবধানে মিথ্যা বলে প্রমাণিত হয়েছে। কিন্তু তাদের বিদ্বেষপূর্ণ রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক অবস্থান ও কুঅভ্যাসের পরিবর্তন হয়নি। আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, এসব বানোয়াট কল্পকাহিনী জনগণ বহু আগেই ছুড়ে ফেলেছে। একই সাথে দলকানা গণমাধ্যম ও দায়িত্বহীন পুলিশ কর্মকর্তাকে চ্যালেঞ্জ করে বলতে চাই, ছাত্রশিবিরের সাথে রহুল আমিন (২১), জাভেদ (৩১), আব্দুল কাদের সুজন (২৯), তুহিন (২৮) ও রনি (২০) এই চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসীর সাথে সামান্যতম কোন সম্পর্ক এখন পর্যন্ত কেউ প্রমাণ করতে পারেনি এবং পারবেও না। কারণ ছাত্রশিবির সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজিকে ঘৃণা করে। তাছাড়াও সন্ত্রাসী,চাঁদাবাজি,অস্ত্রধারী বহু ঘটনার সাথে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আ.লীগের নেতাকর্মীদের সরাসরি সম্পৃক্ততা প্রমাণিত হয়েছে।


চট্টগ্রাম এর অন্যান্য খবরসমূহ
রাজনীতি এর অন্যান্য খবরসমূহ