কুমিল্লায় যাত্রীবাহী পরিবহনে অতিরিক্ত ভাড়া ফেরত পাচ্ছে ! প্রশংসায় ভাসছে প্রশাসন

আসন্ন ঈদ উপলক্ষে কুমিল্লায় যাত্রীবাহী পরিবহনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বিরুদ্ধে শনিবার থেকে শুরু হওয়া অভিযান দ্বিতীয় দিনের মত রবিবারও পরিচালনা করেছে কুমিল্ল জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত। এ সময় অতিরিক্ত ভাড়া টাকা যাত্রীদের ফেরত দেওয়া হয়।

রবিবার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বিভিন্ন স্পটে বাসে বাসে এ অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানে অনেকগুলো বাসে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পায় ভ্রাম্যমান আদালত। সাথে সাথে আদায়কৃত অতিরিক্ত টাকা যাত্রীদের ফেরত দেওয়া হয়।

শনিবার থেকে প্রশাসনের এমন উদ্যোগের সংবাদ কুমিল্লার বার্তায় প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে প্রশংসায় ভাসছে কুমিল্লা প্রশাসন। অনেকে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত রাখার দাবি জানান।

কুমিল্লা থেকে ঢাকা গামী রয়েল, প্রিন্স ও এশিয়া এয়ারকন বাস ২৫০ টাকা (এসি) ভাড়া ৩৫০ টাকা। তিশা পরিবহন ১৮০ টাকা ভাড়া ২৫০ টাকা নিচ্ছে। ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানের মাধ্যমে নির্ধারিত ভাড়া থেকে অতিরিক্ত টাকা যাত্রীদের ফেরতের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফজলে এলাহী’র উপস্থিতে যাত্রীদের টাকা ফেরত দেওয়া হয়। বাস কর্তৃপক্ষদের অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করলে পরবর্তীতে আইনী ব্যবস্থা গ্রহনের হুশিয়ারি দেওয়া হয়।

যাত্রীরা বলেন, ঈদের কথা বলে হঠাৎ করে আমাদের থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায় করছে। বাধ্য হয়ে অতিরিক্ত টাকা দিতে হচ্ছে। তবে ১০০ টাকা ফেরত পাব কখনও কল্পনা করিনি। কুমিল্লা জেলা প্রশাসনকে ধন্যবাদ এ ধরনের উদ্যোগ নেওয়া জন্য।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফজলী এলাহী কুমিল্লার বার্তা ডটকমকে জানান, ঈদ যাত্রা আনন্দদায়ক করার জন্য দিনভর ঢাকা -চট্টগ্রাম মহাসড়কে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চলছে। যার ধারাবাহিকতায় আমরা অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করেছি এবং তাৎক্ষণিক ভাবে অতিরিক্ত ভাড়া যাত্রীদের ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

তিনি জানান, এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।