কুমিল্লায় ব্যয়বহুল চিকিৎসার কথা শুনে সন্তানকে রেখে পালিয়েছেন মা-বাবা - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

কুমিল্লায় ব্যয়বহুল চিকিৎসার কথা শুনে সন্তানকে রেখে পালিয়েছেন মা-বাবা



নিউজ ডেস্ক, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

কুমিল্লার একটি বেসরকারি হাসপাতালে গর্ভকালীন ছাব্বিশ সপ্তাহের পর ভূমিষ্ঠ এক অপরিপক্ব ছেলে শিশুকে ব্যয়বহুল চিকিৎসা খরচের কথা জানতে পেরে গর্ভধারিণী মা ও বাবা ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে। ছেলে শিশুটিকে বাঁচাতে এখন রাখা হয়েছে হাসপাতালটির নবজাতক নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে (ইনকিউবিউটর)।

 

এ বয়সের শিশুটি বেঁচে থাকার কথা না থাকলেও নিবিড় পরিচর্যায় বেঁচে যায়। ধীরে ধীরে সে বেড়ে উঠছে। জন্মের চৌদ্দ দিন পেরিয়ে গেলেও মা-বাবা আর সন্তান নিতে ফিরে আসেনি। মা ও শিশু স্পেশালাইজড হসপিটালের ইনচার্জ ডা. মেহেদী হাসান জানান, চলতি মাসের ১৮ তারিখে মাত্র ছয় মাসের এক গর্ভবতী অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে আসে।

 

ওইদিনই ভূমিষ্ঠ হয় একটি শিশুর। যার ওজন মাত্র সাতশ গ্রাম। সাধারণত এ বয়সের শিশুর বেঁচে থাকার সম্ভাবনা খুবই কম। শিশুটিকে বাঁচাতে রাখা হয় নবজাতক নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে।

 

মা ও শিশু স্পেশালাইজড হসপিটালের সহকারী ব্যাবস্থাপনা পরিচালক বদিউল আলম চৌধুরী জানান, ভর্তি হওয়ার ছয় দিনের মাথায় ব্যয়বহুল চিকিৎসার কথা জানতে পেরে কৌশলে পালিয়ে যায় গর্ভধারিণী মা ও তার বাবা। বহু চেষ্টা করেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের আর খোঁজ পায়নি। ভর্তি সময়ে দম্পতির বাড়ি চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ বলে জানিয়েছিল।

 

এদিকে সে থেকে শিশুটি পরিচর্যা ইউনিটে থাকায় প্রতিদিন তার পেছনে খরচ হচ্ছে ১৫ হাজার টাকারও বেশি। শিশুটির বাবা মাকে খুঁজে পেতে থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।
সিভিল সার্জন ডা. মজিবুর রহমান জানান, যদি অভিভাবক খুঁজে না পাওয়া যায়, তাহলে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে সহযোগিতা করা হবে।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

কুমিল্লা এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ