কুমিল্লায় বকেয়া বেতনের দাবিতে জুতা কারখানা শ্রমিকদের বিক্ষোভ

কুমিল্লায় বকেয়া বেতনের দাবিতে জুতা কারখানা শ্রমিকরা বিক্ষোভ সমবাশে করেছে। জেলার চৌদ্দগ্রামের নানকরায় অবস্থিত ‘জিল ওয়্যারস্ লিমিটেড’ নামের জুতা কারখানা শ্রমিকরা বকেয়া বেতন ও ওভারটাইমের মজুরি না দিয়ে ফ্যাক্টরি বন্ধ ঘোষণা করায় গতকাল মঙ্গলবার এ বিক্ষোভ সমবেশ করেছে। এর আগে সোমবার বিকেলে শ্রমিকরা একই দাবিতে ওই কারখানায় ভাংচুর চালায়। শ্রমিকদের আন্দোলনের মুখে ঘটনা তদন্তে ‘জিল ওয়্যারস্ লিমিটেড’ কোম্পানীর নির্বাহী পরিচালক তৌহিদুল ইসলাম, সদস্য সচিব ব্যবস্থাপক প্রশাসন বিকাশ চন্দ্র ভৌমিক ও সদস্য ব্যবস্থাপক সাপাই চেইন শেরবাহাদুরকে সদস্য করে কমিটি গঠন করেছে ওই কারখানা কর্তৃপক্ষ।

 

গতকাল মঙ্গলবার সকালে কারখানার বিক্ষুদ্ধ প্রায় দুই হাজার শ্রমিক তদন্ত কমিটির কাছে অভিযোগ করে বলেন, তিন মাসের ওভারটাইমের মজুরি, সঠিক সময়ে বেতন না পাওয়া ও টয়লেট বন্ধ রাখায় শ্রমিকদের প্রাত্যহিক জীবন যাত্রার সমস্যা প্রকট হয়ে পড়েছে। নিয়মিত বেতন না পাওয়ায় শ্রমিকদের চরম কষ্ট ভোগ করতে হচ্ছে। এছাড়া শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনা না করেই ওই প্রতিষ্ঠানের জিএম স্বপন শিকদার ইচ্ছেমতো নিয়ম-কানুন চাপিয়ে দেয় বলেও শ্রমিকরা অভিযোগ করেছেন।

 

সমবেশে শ্রমিকদের জন্য টয়লেট খোলা রাখা, বকেয়া বেতন, ওভারটাইমের মজুরি, নিকটতম আত্মীয়-স্বজন মারা গেলে ছুটি, কথায় কথায় গালাগালি ও নির্যাতন বন্ধের দাবি জানান। এ সময় তারা জিএম স্বপন শিকদারের পদত্যাগ দাবি করেন।
শ্রমিক আন্দোলনের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের এসআই নরুজ্জামান হাওলাদার ও এসআই ফরিদের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে শ্রমিকদের শান্ত করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

 

এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটির চেয়ারম্যান ও ‘জিল ওয়্যারস্ লিমিটেড’ কোম্পানীর নির্বাহী পরিচালক তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ‘শিগগিরই শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ ও দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে’।