চুরির অভিযোগে কুমিল্লায় যুবকের হাত কর্তন - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

চুরির অভিযোগে কুমিল্লায় যুবকের হাত কর্তন



নিউজ ডেস্ক, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

চুরি ও মাদকের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে জাহাঙ্গীর হোসেন বাদশা (৩৪) নামে এক যুবকের ডান হাত কর্তন করে দেহ থেকে বিচ্ছিন্ন করেছে বিক্ষুব্ধ জনতা। কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের যশপুর গ্রামে সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

যুবকের কর্তন করা হাত ও তার ছবিটি মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ‘উপযুক্ত শাস্তি’ বলে অনেকেই মন্তব্য করেন। বাদশা ওই গ্রামের মরহুম মোহন মিয়ার ছেলে। বর্তমানে গুরুতর আহত অবস্থায় তিনি ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে জানান, দীর্ঘদিন ধরে যশপুর বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই ও নারী নির্যাতন করে আসছিলেন জাহাঙ্গীর হোসেন বাদশা। বিভিন্ন সময় শালিস বৈঠক করে বাদশাকে এসব অপরাধ কর্মকাণ্ড বিরত থাকতে নিষেধ করলেও তিনি তা আমলে নেননি।

স্থানীয়রা আরো জানান, সম্প্রতি যশপুর বাজারে আবারও চুরির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বাদশাকে অভিযুক্ত করে এলাকাবাসী। চুরির পর থেকে পলাতক ছিলেন তিনি। সোমবার রাতে তাকে দেখতে পেয়ে ভুক্তভোগীসহ বিক্ষুব্ধ জনতা গণপিটুনি দিয়ে তার ডান হাত কেটে দেয়। মঙ্গলবার সকালে হাতটি পার্শ্ববর্তী খেয়াইশ গ্রামের একটি প্রজেক্টে পাওয়া যায়। পরে সেটি ওই প্রজেক্টের পাড়ে পুতে রাখা হয়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক শাহজালাল মজুমদার বলেন, হাত কর্তন করা যুবক এলাকার চিহ্নিত চোর ও মাদক ব্যবসায়ী। প্রায় সময় পথচারীদের গতিরোধ করে তিনি মালামাল লুট করতেন। সোমবার রাতে তিনি যশপুরে ছিনতাইয়ের চেষ্টা করলে বিক্ষুব্ধ জনতা তাকে মারধর করে একটি হাত কেটে দেয়।

এ বিষয়ে মঙ্গলবার দুপুরে চৌদ্দগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল্লাহ আল মাহফুজ বলেন, হাত কাটার একটা ঘটনা শুনেছি। বিস্তারিত জানি না। তার বিরুদ্ধে মামলা আছে কিনা তা জানি না। তদন্ত করে জানাবো।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

কুমিল্লা এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ