কুমিল্লার পদুয়ার বাজারে পেট থেকে ১০ হাজার ইয়াবা বের করল র‍্যাব!

পেটের ভেতর ইয়াবা থাকায় পাঁচজনকে ধরে হাসপাতালে নিয়ে গেছে র‌্যাব-১১-এর সদস্যরা। মঙ্গলবার ভোরে কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড এলাকা থেকে তাদের ধরা হয়।

পরে নগরীর শাকতলা এলাকার মডার্ন হাসপাতালে তাদের নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালের এক্স-রেতে ধরা পড়ে তাদের পেটের ভেতরে ইয়াবা রয়েছে। পরে এসব ইয়াবা বের করা হয়।

ধরা পড়া ব্যক্তিরা দীর্ঘদিন ধরে কুমিল্লা, ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিনব পন্থায় ইয়াবা পাচার করে আসছিল বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

র‌্যাব-১১ সিপিসি-২-এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানি কমান্ডার শেখ বিল্লাল বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা মঙ্গলবার ভোরে নগরীর পদুয়ার বাজার এলাকায় অবস্থান করছিল।

এ সময় শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস থেকে নেমে পাঁচজন কুমিল্লা শহরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

পরে মডার্ন হাসপাতালে নিয়ে এক্স-রের মাধ্যমে তাদের পেটের ভেতর ইয়াবার সন্ধান পাওয়া যায়। তারা জানিয়েছে টেকনাফ থেকে কুমিল্লায় পাচারের উদ্দেশ্যে এসব ইয়াবা নিয়ে আসা হয়। পরে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

তারা হলেন- বরিশালের গৌরনদী উপজেলার জহির সিকদারের ছেলে রাসেল সিকদার সুমন (৩১), একই উপজেলার ঘেরাকুল গ্রামের ছিদ্দিক সর্দারের ছেলে রেজাউল সর্দার (২৫), জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার রবিউল মন্ডলের ছেলে সাদ্দাম হোসেন (২৫), লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে রিয়াজ হোসেন (২৯) ও নাটোরের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে রাশেদুল ইসলাম (২৫)।