লাকসামে প্রবাসীর স্ত্রী’র আত্মহত্যা

লাকসামে গলায় ফাঁস দিয়ে কবিতা রানী দাস (২৭) নামে এক আমেরিকান প্রবাসীর স্ত্রী আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে। পৌর শহরের জগন্নাথদিঘীর দক্ষিণ পাড়ে সোমবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে।


জানা গেছে, শহরের ৮নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ লাকসাম জগন্নাথদিঘীর দক্ষিণ পাড়ে ৫০৮নং ভবনের ২য় তলায় ভাড়াটিয়া হিসেবে মা ও এক শিশু সন্তানকে নিয়ে বসবাস করত ওই প্রবাসীর স্ত্রী। মা-মেয়ে-সন্তানসহ তারা সবাই এক বিছানায় ঘুমাত। ওইদিন শেষ রাতে শরীর জ্বালা-পোড়া করে বলে কবিতা রানী তার বেড রুমে গিয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়। ভোরে রুমের দরজা না খোলায় তার মা ভবনের দারোয়ানকে নিয়ে এসে দরজা ভাঙ্গার বলে। পরে দারোয়ান বাড়ির মালিক ও আশপাশের ভাড়াটিয়াদের ডেকে এনে তাদের সামনে দরজার ছিটিকিনি ভেঙ্গে দেখে কবিতা সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলে রয়েছে।
কবিতার পিতা পান বিক্রেতা সুবল চন্দ্র দাস জানান, তার স্বামী রনজিৎ দাস দীর্ঘদিন ধরে আমেরিকায় প্রবাসী। কবিতা রানী দাস ও একমাত্র পুত্র সন্তান অর্জুন চন্দ্র দাসের (৪) আমেরিকা যাওয়ার সকল কাগজপত্র সম্পন্ন হয়েছে। তার শ্বশুর বাড়ী নোয়াখালীর আমিশাপাড়া এবং পিত্রালয় লাকসাম পৌর শহরের ১নং ওয়ার্ডের কোমারডোগা গ্রামে। সে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ থেকে এ বছর হিসাব বিজ্ঞান বিভাগে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করে।


এ ব্যাপারে লাকসাম থানার ওসি মোঃ নিজাম উদ্দিন জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় কবিতা রানীর পিতা বাদী হয়ে একটি ইউডি মামলা রুজু করেন।