লাকসামে অভিভাবকহীন পৌর সড়ক - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :
পাঁচ হাজার লোকের দূর্ভোগের শেষ নেই

লাকসামে অভিভাবকহীন পৌর সড়ক



এম.এ মান্নান, (খবর তরঙ্গ ডটকম)


দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে লাকসাম পৌরশহরের উত্তর কাদ্রা-বিনই সড়কটি যেন মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে। এ সড়কে প্রায় এক যুগে কোন সংস্কারের ছোঁয়া পায়নি। ভাঙ্গাচুরা এই সড়কে প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা। যানবাহন বন্ধ থাকায় ওই এলাকার ৫ থেকে ৬টি গ্রামের প্রায় ৫ হাজার লোকের দূর্ভোগের শেষ নেই। দীর্ঘ বছর সংস্কার না হওয়ায় অভিভাবকহীন হয়ে পড়েছে সড়কটি।


খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পৌরশহরের ৯নং ওয়ার্ড কাদ্রা থেকে বিনই সড়কটি ২০০৪ সালে পাকা করণ করা হয়। এরপর থেকে এ সড়কটিতে কোন সংস্কারের উদ্যোগ নেয়নি পৌর কর্তৃপক্ষ। সড়কটি ৩ ও ৯নং ওয়ার্ডের মধ্যবর্তী হওয়ায় প্রায় ১৫ বছর যাবত সড়কটি মেরামত হয়নি এতে এলাকাবাসী চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। সামাজিক, সাংস্কৃতিক কাজে যোগাযোগ থেকে বঞ্চিত এলাকাবাসী। সড়কটি সংস্কারের দাবীতে পৌর কার্যালয়ে এলাকাবাসী লিখিত অভিযোগ দেয়ার পরও এটি বাস্তবায়ন সম্ভব হয়ে উঠেনি। ওই এলাকার স্কুল-কলেজ পড়–য়া শিক্ষার্থী, গর্ভবর্তী মহিলা ও নানান পেশার লোকজন সড়কটিতে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। গতবছর ওই এলাকায় অগ্নিকান্ড ঘটনা ঘটলে সড়কটি ঝুকিপূর্ন হওয়ায় দমকল বাহিনী তাদের সরঞ্জাম নিয়ে প্রবেশ করতে পারেনি। প্রায় ১ কিঃ মিঃ সড়ক যেন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। এ যেন দেখার কেউ নেই। ভোগান্তির কারণে পথযাত্রীরা প্রতিনিয়ত দুষছে সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধিদের। এমনকি আঙ্গুল তুলেও কথা বলতে দিধা করছে না পথচারীরা। সংস্কার না হওয়ায় এ সড়কে চলাচল এখন অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এ সড়কে শুধু পিচ উঠেনি, সড়কটি ভেঙ্গে পুকুরে পড়ে গেছে ও ইট উঠে ফাঁকা প্রায়। এরপরও জনপ্রতিনিধিদের চোখের নজর পড়ছে না।


পৌর শহরের কাদ্রা এলাকার বাসিন্দা ফরিদ হোসেন বলেন, এলাকাবাসীর চলাচলে রাস্তাটি সংস্কারের প্রয়োজন। মন্ত্রী মহোদয়ের অনুপ্রেরণায় পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়নের কাজ হচ্ছে। আমাদের এ সড়কটি সংস্কার করলে এলাকাবাসী উপকৃত হবে।


এ ব্যাপারে পৌর মেয়র অধ্যাপক আবুল খায়ের বলেন, পৌরসভার উন্নয়নের কর্মকান্ড হচ্ছে পর্যায়ক্রমে এ সড়কটিও হবে।


কুমিল্লা এর অন্যান্য খবরসমূহ
লাকসাম এর অন্যান্য খবরসমূহ