মনোহরগঞ্জে অনৈতিক কাজে ইউপি মেম্বারকে গণ জুতা পিটুনি - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

মনোহরগঞ্জে অনৈতিক কাজে ইউপি মেম্বারকে গণ জুতা পিটুনি



মশিউর রহমান সেলিম, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার সরসপুর ইউপির সাহাপুর গ্রামের গতকাল শুক্রবার রাতে লক্ষণপুর ইউপির ২নং ওয়ার্ড মেম্বার আনোয়ার হোসেনকে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে গ্রামবাসীর হাতে আটক হয়ে গন জুতা পিটুনি খেয়েছে। এই নিয়ে এলাকার পাশাপাশি দুই ইউপির জনমনে নানাহ বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।


স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, গত শুক্রবার রাতে সরসপুর ইউপির সাহাপুর গ্রামের ইউনুছ হাজী বাড়ীতে অনৈতিক কাজের অভিযোগে খবর পেয়ে গ্রামের লোকজন ঐ বাড়ী ঘেড়াও করে লক্ষণপুর ইউপির ২নং ওয়ার্ড মেম্বার আনোয়ার হোসেনকে আটক করে গণধোলাই দেয় এবং তার গলায় জুতার মালা পড়িয়ে পুরো গ্রাম ঘুড়ায় অবশেষে স্থানীয় চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নানের জিম্মায় ছেড়ে দেয় তবে এ ঘটনা নিয়ে ঐ বাড়ীর গৃহবধু রিনা বেগম বলছেন ভিন্ন কথা।


বিশেষ করে একই গ্রামের বর পক্ষ ও ঐ বাড়ীর বিধবা মনোয়ারা বেগমের পক্ষ মিলে বিয়ের কথাবার্তার এক পর্যায়ে গ্রামের এবং বহিরাগত লোকজন আমাদের বাড়ীতে হামলা চালায় এবং আমার তালই আনোয়ার মেম্বারকে মারধর ও লাঞ্চিত করে। খবর পেয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করে এবং ঐ দিন রাতেই বিধবা মনোয়ারার পূর্বের নির্ধারিত বর আইয়ুব আলীর সাথে ২ লক্ষ কাবিনে বিয়ে সম্পন্ন হয়।


ঘটনার সত্যতা অনেকটাই নিশ্চিত করে অভিযুক্ত আনোয়ার মেম্বার জানায়, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। পরিকল্পিতভাবে স্থানীয় একটি পেশী শক্তি এ ঘটনা ঘটায়। মূলতঃ ঐ দিন আমার বিধবা ঝিয়ারি মনোয়ারার একই গ্রামের বরের সাথে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। আমার বিয়াই ইয়াকুব মিয়ার অনুরোধে তার বাড়ীতে যাই। বর পক্ষ সহ আমরা কথাবার্তা শুরুর এক পর্যায়ে কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই গ্রামের লোকজন আমার উপর হামলা চালায় এবং আমাকে চরমভাবে লাঞ্চিত করে।


এব্যাপারে লক্ষণপুর ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন চৌধুরী ও সরসপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান সহ প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক একাধিক ব্যক্তিকে তাদের মুঠোফোনে অনেক চেষ্টা করেও কোনো বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।


কুমিল্লা এর অন্যান্য খবরসমূহ
মনোহরগঞ্জ এর অন্যান্য খবরসমূহ
লাকসাম এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ