প্রাণঘাতী করোনা আক্রান্ত জনপ্রতিনিধির তালিকা দীর্ঘ হচ্ছে কুমিল্লায় - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

প্রাণঘাতী করোনা আক্রান্ত জনপ্রতিনিধির তালিকা দীর্ঘ হচ্ছে কুমিল্লায়



অনলাইন ডেস্ক, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

প্রাণঘাতী নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বৃদ্ধি পাচ্ছে। নানা শ্রেনীর-পেশার মানুষের পাশা-পাশি আক্রান্তা হচ্ছেন জেলার বিভিন্ন অঞ্চলের প্রতিনিধিরাও। আর ধীরে ধীরে আক্রান্তের তালিকা দ্বীর্ঘ হচ্ছে কুমিল্লায়।

তাদের মধ্যে কয়েকজন সুস্থ হয়ে কর্মস্থলে ফিরলেও একেবারে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন বেশ কয়েকজন সাবেক ও বর্তমান জনপ্রতিনিধি। তাই করোনাকালে ‘মাঠের যোদ্ধা’ হিসেবে পরিচিতি এসব জনপ্রতিনিধিদের কোভিড আক্রান্ত হওয়ার খবরে একদিকে যেমন বাড়ছে দুশ্চিন্তা; মনে জাগছে নানা শঙ্কাও।


চলতি সপ্তাহেই কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন, বিভিন্ন উপজেলা পরিষদ, পৌরসভার মেয়র, কাউন্সিলর, চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যানসহ অন্তত এক ডজন জনপ্রতিনিধির করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে।


এ তালিকায় আছেন, সদর দক্ষিণ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম সারওয়ার, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাবলু, নাঙ্গলকোট পৌরসভার মেয়র আবদুল মালেক, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ভূঁইয়া, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ও ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর জমির উদ্দিন খান জম্পি এবং ১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী গোলাম কিবরিয়াসহ আরো অনেকে। যদিও সম্প্রতি কুমিল্লায় কোভিড-১৯ আক্রান্ত হওয়া জনপ্রতিনিধিদের সকলেই সুস্থ আছেন। পাশাপাশি অনেকের শরীরে কোনো উপসর্গ নেই বলেও জানা গেছে।


সোমবার (২২ জুন)কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জমির উদ্দিন খান জম্পি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। বিকেলে পাওয়া তাঁর নমুনা পরীক্ষার ফলে করোনা পজিটিভের বিষয়টি জানা যায়। বর্তমানে তিনি কুমিল্লা নগরের পশ্চিম বাগিচাগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন। একই দিনে করোনায় আক্রান্ত হন কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের ১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী গোলাম কিবরিয়া।


১৯৮৫ সাল থেকে টানা ছয়বার নির্বাচন করে প্রতিবারই জয়ী হওয়া জমির উদ্দিন খান জম্পি কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক।জানতে চাইলে জমির উদ্দিন খান বলেন, ‘গত মঙ্গলবার থেকে আমার জ্বর শুরু হয়। জ্বর না কমায় গত শনিবার নমুনা দিই। সোমবার নমুনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে। আমি বাসায় আইসোলেশনে আছি। সবার কাছে দোয়া চাই।’


১৯ জুন (শুক্রবার) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের ছোট ভাই কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম সারওয়ার। এর আগে ১৫ জুন কুমিল্লার লালমাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও অর্থমন্ত্রীর বড় ভাই আবদুল হামিদও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। গোলাম সারওয়ার বর্তমানে দুতিয়াপুরস্থ বাসায় হোম আইসোলেশনে আছেন। তবে তার শরীরে কোনো উপসর্গ নেই এবং তিনি সুস্থ আছেন।


গতকাল (মঙ্গলবার) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হাই বাবলু।

এর মধ্যে সর্বশেষ গতকালও কুমিল্লার দেবীদ্বারে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যান একজন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান।


একই দিনে করোনার উপসর্গ নিয়ে প্রাণ হারান চৌদ্দগ্রামের এক ইউপি সদস্যও।


পূর্বের সংবাদ