পাহাড়ধসে কক্সবাজারে মা-মেয়ে নিহত

রোববার দিবাগত রাত দুইটার দিকে কক্সবাজার শহরের সদরে কবরস্থান পাড়ায় পাহাড়ধসে মা ও মেয়ে নিহত হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে আরো তিনজন। দুর্ঘটনায় পাঁচটি বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

নিহতরা হলেন খাইরুল আমিনের স্ত্রী লুৎফুন নাহার জুনু (২৫) ও তার মেয়ে নিহা মনি (৬)।

নিখোঁজ ব্যক্তিরা হলেন শাহ আলম (৪৫), তার স্ত্রী রোকেয়া বেগম (২৫) ও রিনা আকতার (১৬)।

এ ছাড়া জীবিত উদ্ধার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন জহিরুল হকের মেয়ে শারমিন আকতার (২০), খাইরুল আমিনের ছেলে মোহাম্মদ আয়াত (১২), জাফর আলমের ছেলে মোহাম্মদ শেফায়েত (২০) ও জাকের হোসেনের ছেলে নুর নবী (২৮)।

পাহাড়ধসের ঘটনায় তিনজন আহত হয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি।

কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আবদুল মজিদ জানান, “উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। এ পর্যন্ত দুজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকাজে দমকল বাহিনীর পাশাপাশি পুলিশ, বিজিবি ও সেনাবাহিনীর সদস্য সহযোগিতা করছেন। ”

উদ্ধারকাজে নিয়োজিত সেনাবাহিনীর ১৬ ইসিবির সদস্য মোহাম্মদ শেফায়েত বলেন, “নিহত মা তার শিশু মেয়েকে বুকে জড়িয়ে ছিলেন। দৃশ্যটি খুবই হৃদয়বিদারক ছিল।”

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তোফায়েল আহমদ বলেন, “উদ্ধার তৎপরতায় পুলিশ সহযোগিতা করছে। ”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।