হোয়াইক্যং নাফনদী হতে নিখোঁজ দাদা-নাতনির লাশ উদ্ধার

টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং কান্জরপাড়া সংলগ্ন নাফনদী থেকে নিখোঁজ দাদা-নাতনির ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বাদে জুমা স্থানীয় গোরস্থানে তাদের দাফন করা হয়েছে।

 

জানা যায়, উপজেলার হোয়াইক্যং কান্জরপাড়া নাফনদীর মোহনায় ৩১ আগস্ট সকাল ৭টার দিকে ভাসমান অবস্থায় লম্বাবিলের আব্দুল মালেকের মেয়ে রোজিনা আক্তারের (১০) ভাসমান লাশ দেখে উদ্ধার করেন স্বজনরা।

 

এরপর সকাল সাড়ে ৮টার দিকে রোজিনার দাদা মো. ইউসুফ আলীর (৭৫) ভাসমান লাশ কান্জরপাড়া সংলগ্ন নাফনদীতে দেখতে পেয়ে লোকজন পুলিশে খবর দেন।
পরে হোয়াইক্যং ফাঁড়ির আইসি এসআই দীপংকর কর্মকার বিশেষ ফোর্স নিয়ে স্থানীয় বিজিবির সহায়তায় লাশ উদ্ধার করেন।

 

এলাকাবাসী জানান, তারা উভয়ে গত বুধবার সকালে মৎস্যঘেরে গরু চরাতে গিয়ে নিখোঁজ হন। দু’দিন পর নাফনদীতে ভাসমান লাশ পাওয়া যায়। বাদ জুমা স্থানীয় গোরস্থানে তাদের দাফন করা হয়ছে।

 

টেকনাফ উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী অফিসার প্রনয় চাকমা ও ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঊনচিপ্রাং রইক্ষ্যং খালের মুখে বৃহস্পতিবার উদ্ধার অভিযান চালায়। শুক্রবার সকালে পুনরায় উদ্ধার অভিযানে যাওয়ার আগেই তাদের ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়। প্রণয় চাকমা লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেন।