মনোহরগঞ্জে নেশাজাতীয় দ্রব্যে একই পরিবারের ৬ জন অজ্ঞান

নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশ্রিত খাবার খাইয়ে একই পরিবারের ৬ জন অজ্ঞান করে ডাকাতি চেষ্টার খবর পাওয়া গেছে। কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার খিলা ইউনিয়নের বাতাবাড়িয়ায় মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের লাকসাম উপজেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্র জানায়, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে পশ্চিম বাতাবাড়িয়া মজুমদার বাড়ীর হারুনুর রশিদের পরিবারের সদস্যরা খাবার খেয়ে অচেতন হয়ে পড়ে। ১০টার দিকে পরিবারের অপর সদস্য খিলা বাজারের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম (৪৪) বাড়িতে এসে অন্যান্যদের ছড়িয়ে ছিটিয়ে শীতবস্ত্রবিহীন ঘুমিয়ে থাকতে দেখে তাদেরকে কাঁথা মুড়িয়ে দেন। পরে তিনিও খাবার খেয়ে দোকানের উদ্দেশ্যে বের হন। পথিমধ্যে নেশায় আচ্ছন্ন হতে থাকলে পূনরায় বাড়িতে এসে দরজা বন্ধ করে ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে পাশের বাড়ির লোকজন তাদেরকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে লাকসাম হাসপাতালে ভর্তি করে। আহতরা হলো- জাহাঙ্গীর আলম (৪৪), তার কন্যা øেহা (৭), আলমগীর হোসেন (৩৫), মোজাম্মেল হক (২৭), গৃহবধূ শাহিনা আক্তার (২৩) ও তার শিশুপুত্র সামির (৩)।
স্থানীয়রা জানায়, মাত্র ১দিন আগে ওই এলাকায় ডাকাতি সংঘটিত হয়। ডাকাতির উদ্দেশ্যেই পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটতে পারে। ডাকাতির ভয়ে এলাকায় আতংক বিরাজ করছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।