নাঙ্গলকোট ডিগ্রী কলেজের সহকারি অধ্যাপক রুহুল আমিনের উপর অতর্কিতভাবে সন্ত্রাসী হামলার

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাছিনা এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য আ হ ম মুস্তফা কামালকে (লোটাস কামাল) কটুক্তি করার অভিযোগ এনে ৩ সন্ত্রাসী কর্তৃক নাঙ্গলকোট ডিগ্রী কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক রুহুল আমিনের উপর অতর্কিতভাবে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে।
শুক্রবার দুপুরের নাঙ্গলকোট পৌরসভার হরিপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। গুরুতর আহত শিক্ষক রুহুল আমিনকে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তার গ্রামের বাড়ি লক্ষীপুরের রামগতি উপজেলার চরসীতা গ্রামে।  বিকেল ৫টায় হাসপাতালে আহত শিক্ষক রুহুল আমিন খবর তরঙ্গ ডটকমকে জানান, শুক্রবার দুপুরে নাঙ্গলকোট পৌর মেয়র সামছুদ্দিন কালুর বাড়ির মসজিদে জুম্মার নামাজ শেষে আমার সহকর্মী আবদুল লতিফ সহ বাসার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হই। এ সময় সন্ত্রাসী নাঙ্গলকোট গ্রামের রণি, হরিপুর গ্রামের জাফর উল্লাহ এবং চৌগুরি গ্রামের মুসা আমাকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাছিনা এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য আ হ ম মুস্তফা কামালকে কটুক্তি করার অভিযোগ এনে অতর্কিতভাবে লাঠি-সোটা দিয়ে আমার উপর হামলা করে। নাম প্রকাশে অনিশ্চুক একজন শিক্ষক দাবী করেন হামলা অংশকারীরা আওয়ামী সন্ত্রাসী।

তারা আমার হাতে, পায়ে বেধড়ক পিঠায় এবং মাথায় কিল-ঘুষি মারতে থাকে। এসময় আমার সহকর্মী আমাকে রক্ষায় এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তার উপরও হামলা চালায়। পরবর্তীতে অন্য এক শিক্ষক আহত অবস্থায় আমাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

তিনি বলেন, আমি কখনো প্রধানমন্ত্রী এবং স্থানীয় সংসদ সদস্যকে কটুক্তি করি নাই।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।