কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে শিবিরের মিছিলে পুলিশের হামলা:আহত ২০ - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে শিবিরের মিছিলে পুলিশের হামলা:আহত ২০



চৌদ্দগ্রাম, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জামায়াত-শিবিরের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টায় উপজেলার চৌদ্দগ্রাম বাজারে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবিতে ছাত্রশিবিরের উদ্যোগে মিছিল বের করলে পুলিশ তাতে বাধা দেয় এ সময় শিবির-জামায়া কর্মীরা পুলিশের সাথে সংঘর্ষ জড়িড়ে পড়ে এসময় পুলিশ কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়ে। এতে ১০ জন গুলিবিদ্ধসহ ১৭ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। বুলেটবিদ্ধরা হলেন, জামায়াত কর্মী লিয়াকত, আরিফ, আনোয়ার, শিবির নেতা রুমন, জুয়েল, নোমান, মিশু, মাছুম, হাসান ও সাদ্দাম। পুলিশের রাবার বুলেটে জামায়াত কর্মী লিয়াকতের কান ছিড়ে গেছে বলে জানা গেছে।এছাড়াও ছাত্রশিবির কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা প্রচার সম্পাদক আমজাদ হোসেন রুমন মাথায়, মিশু , আরিফ , জুয়েল ও মাছুমের শরীরে ৪টি রাবার বুলেটবিদ্ধ হয়।

পুলিশের হামলায় আহত অন্যান্যরা হলেন, ছাত্রশিবির কর্মী নাজমুল, রুবেল, রবিউল, মিজান, ফারুক, আতিক, হারুন, লিটন ও এমরান।
চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর মিজানুর রহমান বলেন, “সারাদেশে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের ওপর সরকারের নির্যাতন ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে বিকেল সোয়া ৩টায় জেলা দক্ষিণের ছাত্র শিবিরের সভাপতি জয়নাল আবেদিনসহ নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে মহাসড়ক হয়ে বাজারে আসার পর পুলিশ আমাদের ওপর ১২ থেকে ১৫ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এসময় ১০ জন গুলিবিদ্ধসহ ১৭ জন নেতাকর্মী আহত হয়।” আহত ও গুলিবিদ্ধদের কুমিল্লা ও চৌদ্দগ্রামের প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি ) মোজাম্মেল হোসেন বলেন, “জামায়াত-শিবির কর্মীরা মিছিল করার জন্য মহাসড়কে আসার চেষ্টা করেছিল। মহাসড়কে ভাঙচুরের আশঙ্কায় আমরা তাতে বাধা দিয়েছি। তারা বাধা উপেক্ষা করে আসার চেষ্টা করলে আমার ৪ রাউন্ড রাবার বুলেট ছুড়ি। তাদের ৭/৮ জন আহত হয়েছে বলে শুনেছি। তবে এ ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হয়নি।”


এ সম্পর্কিত আরো খবর

জেলা এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ