যশোরে হরতালে শিবির-পুলিশ সংঘর্ষ: নিহত ০১কনস্টেবল

দেশজুড়ে জামায়াতের হরতালে সকালে যশোরের মণিরামপুর উপজেলায় পিকেটারদের সঙ্গে সংঘর্ষ চলাকালে মারা গেছেন এক পুলিশ কনস্টেবল। ‘বিতর্কিত ট্রাইব্যুনাল বাতিল করে দলের শীর্ষ নেতাসহ বিরোধী দলের সব আটক নেতা কর্মীদের মুক্তি, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহাল ও জনদুর্ভোগ লাঘবের দাবি আদায়ে’ বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল করছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।  দলটির ছাত্র সংগঠন ইসলামী ছাত্রশিবিরের নেতা-কর্মীরা সকাল ৭টার দিকে যশোরের মণিরামপুর উপজেলায় মিছিল বের করার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। এসময় উপজেলা শহরের গোহাটা দুপক্ষের সংঘর্ষে ৪ পুলিশ কনস্টেবল আহত হন। আহতরা হলেন উপপরিদর্শক শংকর ও  জিয়ারুল, এবং কনস্টেবল নওয়াব আলী ও মোসলেম উদ্দিন।

পরে পুলিশ জামায়াত-শিবির কর্মীদের ধাওয়া করে। এরপর আশপাশে থাকা ছাত্রলীগ ও যুবলীগ কর্মীরা মিছিলকারীদের ধাওয়া করলে নতুন করে সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় কর্তব্যরত কনস্টেবল জহুরুল ইসলাম (৪০) অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে যশোরে নেয়ার পথে তারা মৃত্যু হয়।

সংঘর্ষে পুলিশ সদস্যরা ছাড়াও শিবিরের নেতাকর্মী সহ ১০ জন আহত হন এবং কয়েকজন পিকেটারকে পুলিশ আটক করে।

জামায়াতের ডাকা এই হরতালে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন সভাপতির অনুরোধে ঢাকা মহানগরীতে ও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) কর্তৃপক্ষের অনুরোধে চট্টগ্রাম মহানগরী এলাকায় অর্ধদিবস হরতাল পালন করছে দলটি। হরতালে নৈতিক সমর্থন দিয়েছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।