হরতালে কুমিল্লায় গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

হরতালে কুমিল্লায় গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ



নিউজ ডেক্স, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

কুমিল্লার বিভিন্ন স্থানের জামায়াতের ডাকা সকাল সন্ধ্যা হরতাল খবর  পাঠিয়েছে আমাদের প্রতিনিধিরা –

কুমিল্লা নগরী: হরতাল চলাকালে মহানগরীর কান্দিপাড় সহ নগরীর সকল এলাকায় রাস্তায় কোন প্রকার মোটর চালিত যানবাহন চলাচল করতে তেমন দেখা যায়িন। শহরের বিভিন্ন জায়াগায় দোকান পাট ব্যবসা প্রতিষ্ঠান প্রায় বন্ধ ছিল । হরতাল সমর্থনে জামায়াত শিবির নেতা কর্মীরা নগরীতে খন্ড মিছিল করেছে। বাস টারমিনালগুলো থেকে দূরপাল্লার কোন বাস ট্রাক ছেড়ে যায়নি। নাশকতা ঠেকাতে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কের মোড়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পদুয়ারবাজার: সকাল ৬টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পদুয়ারবাজারে একটি ট্রাকে আগুন দেয় পিকেটাররা। এসময় বেশ কয়েকটি যানবাহন ভাংচুর করে তারা। পরে দমকল বাহিনীর একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নেভায়।

লাকসাম: বাইস সড়ক সহ বেশ কয়েক টি জায়গায় জামায়াত শিবিরের পিকেটাররা টায়ারে আগুন জালিয়ে এবং রাস্তায় গাছ পেলে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা তৈরী করে, লাকসাম বাস টারমিনালগুলো থেকে দূরপাল্লার কোন বাস ট্রাক ছেড়ে যায়নি। হরতাল সমর্থনে জামায়াত শিবির নেতা কর্মীরা  খন্ড মিছিল করেছে, তবে দোকান পাট যথারিতি খোলা ছিল।

চৌদ্দগ্রাম: এদিকে মহাসড়কের চৌদ্দগ্রামে পিকেটিংয়ের সময় পুলিশের সাথে জামায়াত শিবির কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। পুলিশ ৩ রাউন্ড ফাকা গুলি ছুড়ে। হরতাল সমর্থকরা সকালে মহাসড়কে ২ টি ট্রাক ও ৩ টি ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা ভাঙচুর করেছে। এছাড়া, চৌদ্দগ্রাম উপজেলার চিওড়া, বাতিসা, আমদাদের বাজার, চৌদ্দগ্রাম বাজার, চান্দুলা, ফাল্গুনকরা, ফায়ার সার্ভিস এলাকা, মিয়াবাজার এলাকায় পিকেটাররা পিকেটিং করেছে।

বুড়িচং: সকালে মহাসড়কের প্রায় ৮টি গাড়ির গ্লাস ভাংচুর করে ছাত্রশিবির কর্মীরা। এসময় পুলিশ বাধা দিলে তাদের ধাওয়া করলে পুলিশ স্থান ত্যাগ করে। পরে সেখানে দাঙ্গা পুলিশ উপস্থিত হয়ে ১০রাউন্ড শটগানের গুলি ছুড়লে পিকেটাররা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। এসময় একজন আহত হয়। মঙ্গলবার সকাল সোয়া ৯টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সদর ও বুড়িচংয়ের মধ্যবর্তী সৈয়দপুর ও ডুবাইরচর এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তবে আহতের নাম জানা যায়নি। এ বিষয়ে দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মাইনুদ্দিন জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১০ রাউন্ড রাবার বুলেট ও শটগানের গুলি ছুড়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় একজন কনস্টেবল আহত হয়েছে। তবে যানবাহন ভাঙচুরের বিষয়টি পুলিশ অস্বীকার করে।

চান্দিনা: হরতালে কুমিল্লার চান্দিনায় ৬টি গাড়ি ভাঙচুর করেছেন পিকেটাররা। মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চান্দিনা বাগুর বাসস্ট্যান্ড ও দোতলা-মাধাইয়া এলাকায় ৫টি ট্রাক ও একটি প্রাইভেটকার ভাঙচুর করা হয়। এছাড়া, হরতালের সমর্থনে মহাসড়কের চান্দিনার বিভিন্ন স্থানে ঝটিকা মিছিল করেন জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা।

দেবিদ্বার: এদিকে দেবিদ্বার থেকে ছাত্রশিবিরের উত্তর জেলা দপ্তর সম্পাদক ওবাইদুল্লাহসহ বিভিন্নস্থান থেকে মোট ৪জনকে আটক করার খবর পাওয়া গেছে।

ফয়েজগঞ্জঃ সকাল ১০টার দিকে সদর দক্ষিণ উপজেলার কুমিল্লা-নোয়াখালী রোডের ফয়েজগঞ্জে এলাকায় শতাধিক জামায়াত-শিবির কর্মীরা রাস্তায় এসে পিকেটিং করে। এসমায় তারা ২টি গাড়ি ভাঙচুর করে।

এদিকে, জেলার কুমিল্লা সদর, লাকসাম, সদর দক্ষিণ ও জামায়ত-শিবিরের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত চৌদ্দগ্রামে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

পূর্বের সংবাদ