কক্সবাজারে শিবির সন্দেহে ২ যুবলীগ কর্মীসহ আটক ১৭ - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

কক্সবাজারে শিবির সন্দেহে ২ যুবলীগ কর্মীসহ আটক ১৭



শাহনেওয়াজ জিল্লু, কক্সবাজার, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

চট্টগ্রামে শিবিরের ৪ নেতাকে গুলি করে ও চোখ উপড়িয়ে ফেলে হত্যার প্রতিবাদে বৃহত্তর চট্টগ্রামে জামায়াত আহুত হরতালে কক্সবাজার শহরে শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হয়। গতবারের মত এবারও হরতালে উত্তাল ছিল ইদগাঁও। পিকেটিংয়ের পাশাপাশি ইদগাঁওয়ে বিপ্তি সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটে। পিকেটার সন্দেহে ইদগাঁওয়ে ৬ পথচারীকে আটক করে অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। স্থানীয় তদন্ত কেন্দ্র পুলিশ দুপুর ২ টায় বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের আটক করে। এদিকে হরতাল সমর্থনে জামায়াত শিবির সমর্থকরা খন্ড খন্ড মিছিল বের করে। হরতালের সমর্থনে শিবিরের একটি বড় মিছিল বাজারের দণি পার্শ্ব থেকে শুরু হয়ে বাঁশঘাটা অতিক্রম করে বাসষ্টেশনের দিকে চলে যায়। মেহেরঘোনায় গাড়ি চলাচলকে কেন্দ্র করে পিকেটার, হারতাল বিরোধী ও পুলিশ সদস্যদের মধ্যে মৃদু সংঘর্ষ হয়। এতে কয়েকজন আহত হয়। আহতরা হচ্ছে মেহেরঘোনার আবদুল কাদেরের পুত্র মোঃ ইউনুছ (২৩) ও মনজুর আলমের পুত্র জাকির হোসেন (১৬)। এদেরকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হলেও তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা যায়। ঘটনাস্থলে র‌্যাবের উপস্থিতিতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। এ সময় পিকেটারদের কয়েকটি গাড়ির আয়না ভাংচুর করতে দেখা যায়। দায়িত্বরত পুলিশ ৫ জনকে আটক করে তদন্ত কেন্দ্রে বেদম পিটুনি দেয়। জানা যায়, পিকেটার সন্দেহে আটককৃতদের মধ্যে ২ জন স্থানীয় যুবলীগের কর্মী। আটককৃতরা হচ্ছে মধ্যম শিয়া পাড়ার মৃত আবুল কালামের পুত্র ট্রাক্টর চালক মোহাম্মদ রফিক (১৮), চান্দেরঘোনা চর পাড়ার শামশুল আলমের পুত্র সিএনজি চালক সাইফুল ইসলাম (১৮), কালিরছড়া লালশরী পাড়ার নুরুল আজিমের পুত্র কৃষক নুরুল আবছার (১৮), ডুলা ফকির মাজার হাজি পাড়ার নুরুল হুদার পুত্র গোলাম মোস্তফা (১৮) এবং কালিরছড়া উত্তর পাড়ার নুরুল আজিমের পুত্র মাহিন্দ্রা চালক রাশেদুল ইসলাম রিপন (১৭) প্রমুখ। এদের মধ্যে সাইফুল ইসলাম ও নুরুল আবছার মূলত ওয়ার্ড যুবলীগের সদস্য। তবে মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) এসআই মেজবাহ ও ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মোঃ মঞ্জুর কাদের ভূঁইয়া বলেন, আটককৃত যুবকরা পুলিশকে ল্য করে ইটপাটকেল ছুড়ে মারে ও গালমন্দ করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে জামায়াত শিবির সন্দেহে ১৭ জন পথচারী আটক করা হয়েছে বলে সূত্রে জানা গেছে। হরতাল শান্তিপূর্ণভাবে পালন করায় আন্তরিক মোবারকবাদ ও অভিনন্দন জানিয়েছেন, জেলার ভারপ্রাপ্ত আমীর মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান, সেক্রেটারী জি. এম রহিমুল্লাহ, শহর আমীর  আবু তাহের চৌধুরী, সদরের আমীর অধ্যাপক মাওলানা শফিউল হক জিহাদী, ইদগাঁও আমীর ডা. আমীর সুলতান ও উখিয়ার আমীর মাওলানা আবুল ফজলসহ প্রমুখ।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

জেলা এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ