লাকসামে ১ম শ্রেনী ছাত্রী ধর্ষিত: প্রভাবশালীদের ধামাচাপার চেষ্টা

কুমিল্লার লাকসামে এক স্কুল ছাত্রী ধর্ষিত হয়েছে। ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটফট করছে। ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার জন্য উঠেপেড়ে লেগেছে একটি প্রভাবশালী মহল। থানায় মামলা দায়েরের পর লাকসাম থানার ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
জানা গেছে, উপজেলার বাকই ইউনিয়নের ভাবকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী স্কুল ছুটি শেষে গত বৃহস্পতিবার বাড়ী ফেরার পথে ভাবকপাড়া গ্রামের কালা মিয়ার ছেলে সামছুউদ্দিন (৪৮) তাকে জোর পূর্বক স্কুলের একটি পরিত্যক্ত ভবনে নিয়ে মুখ বেঁধে ধর্ষন করে। তার চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে আসলে ধর্ষক সামছুউদ্দিন পালিয়ে যায়। লোকজন শিশুটিকে উদ্ধার করে আশংকাজনক অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে ধর্ষিতার পিতা স্কুল ম্যানেজিং কমিটির নিকট লিখিত অভিযোগ করেন। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির একাধিক সদস্য ও এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল জোর তৎপরতা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। জানা গেছে, ধর্ষিতার বাড়ী সদর দণি উপজেলায়। সে তার নানার বাড়ী ভাবকপাড়ায় থেকে লেখাপড়া করছে। এদিকে, ঘটনার পর থেকে সামছুউদ্দিন গা-ঢাকা দিয়েছে।
এ ব্যাপারে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রফিকুল হোসেন খন্দকার ও প্রধান শিক আবু তাহের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং বৃহস্পতিবার ধর্ষিতার পিতার অভিযোগের প্রেক্ষিতে ম্যানেজিং কমিটির জরুরী সভা আহবান করা হয়েছে। বুধবার দুুপুরে লাকসাম থানার ওসি আবুল খায়ের সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বুধবার রাতে শিশুটির নানা কোরবান বাদী হয়ে লাকসাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
লাকসাম থানার ওসি মোঃ আবুল খায়ের জানান, ঘটনার তদন্ত চলছে। দোষীকে গ্রেপ্তারপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।