পর্যটন এলাকা হলেও শিক্ষাক্ষেত্রে পিছিয়ে কক্সবাজার

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক রুহুল আমিন বলেছেন, কক্সবাজার বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন এলাকা হলেও শিােেত্র এ অনেক পিছিয়ে রয়েছে। তাই এখানকান শিার উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন সংস্থা, ব্যক্তিকে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি গতকাল বুধবার বিকালে রামু উপজেলার দনি মিঠাছড়ি ইউনিয়নের চাইল্যাতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
চাইল্যাতলী উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে অবহেলিত জনপদে শিার আলো ছড়িয়ে দেয়ায় স্থানীয় উধ্যমী যুবক আবুল কালাম আজাদের প্রশংসা করে বলেন, সমাজে শিা বিস্তারে এত কম বয়সী যুবকের ভূমিকা উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।
বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মৌলানা আমান উল্লাহ’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন চাইল্যাতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা আবুল কালাম আজাদ।
এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবী চন্দ বলেন, প্রতিষ্ঠান এক বছরে এ বিদ্যালয়টি ভালো ফলাফল লাভ করেছে। সাফল্যের এ ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারলে বিদ্যালয়টি জেলা শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয়ে পরিনত হবে। তিনি উপজেলা প্রশাসনের প থেকে বিদ্যালয়টির উন্নয়নে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথিবৃন্দের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবুল কালাম, খুনিয়াপালং ইউপি চেয়ারম্যান সাংবাদিক আব্দুল মাবুদ, কক্সবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ শাহেদুজ্জামান বাহাদুর, কক্সবাজার সরকারী কলেজের অধ্যাপক মোহাম্মদ মুজিবুল আলম প্রমূখ।
আনছারুল হকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিদ্যালয় কমিটির দাতা সদস্য আনোয়ারুল ইসলাম, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক মুসা কলিম উল্লাহ, সহকারী শিক আব্দুল্লাহ ফারুক, আবুল হোসেন, সিরাজুল ইসলাম, মিনু আরা বেগম, ইয়াছমিন আকতার, মনজুর আলম বাহাদুর, মোহাম্মদ সুমন, আবু তাহের, আব্দুল কাদের, নুরুল আবছার, ফিরোজ আহমদ, সাহাব উদ্দিন প্রমূখ।
পরে অতিথিবৃন্দ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ছাত্র-ছাত্রীদের পুরস্কার বিতরণ করেন। এরআগে প্রধান অতিথি বিদ্যালয়ে পৌঁছলে বিদ্যালয়ের শিক-শিার্থীরা তাকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।