পুলিশ-বিজিবি হাতাহাতি

ভারতীয় জিরা ট্রেন থেকে আটকের ঘটনায় বিজিবি ও জিআরপি পুলিশের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে। শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা রেলস্টেশনে এ ঘটনা ঘটে। সিজারলিস্ট না করেই জিরার বস্তাগুলো স্টেশন থেকে নিয়ে যাওয়ার সময় জিআরপি পুলিশ বাধা দিলে বিজিবি-জিআরপি হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

সূত্র জানায়, খুলনা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি উথলী স্টেশনে বিশেষ অনুমতি নিয়ে থামায় উথলী বিশেষ ক্যাম্পের বিজিবি। হাবিলদার শহিদুলের নের্তৃত্বে বিজিবির ১০ সদস্য উথলী স্টেশন থেকে ট্রেনে তল্লাশি করতে ওঠেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, চুয়াডাঙ্গা রেলস্টেশনে ট্রেনটি থামলে বিজিবি সদস্যরা তল্লাশি করে ট্রেন থেকে ছয়/সাত বস্তা জিরা নামিয়ে একটি শাদা মাইক্রোবাসে তুলতে চাইলে চুয়াডাঙ্গা রেলস্টেশন জিআরপি ফাঁড়ি ইনচার্জ বারেক বাধা দেন এবং সিজারলিস্টপূর্বক জিরা নিয়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। এ সময় বারেককে বিজিবি সদস্যরা লাঞ্ছিত করেন।

পরে প্লাটফর্মের অপরপ্রান্তে থাকা আরো সাড়ে চার বস্তা জিরা আটক করে বিজিবি। বিজিবির হাবিলদার শহিদুল জানান, সিজারলিস্টের কাগজপত্র না থাকায় তাৎক্ষণিকভাবে সিজারলিস্ট করা সম্ভব হয়নি।

চুয়াডাঙ্গা জিআরপি ফাঁড়ির ইনচার্জ বারেক জানান, বিধান থাকলেও বিজিবি সদস্যরা আমাদের না জানিয়ে এবং সিজারলিস্ট না করেই জিরাগুলো মাইক্রোবাসে তুলে নিতে চাইলে আমি বাধা দিই। এ সময় বিজিবি সদস্য কাদের আমাকে লাঞ্ছিত করে।

চুয়াডাঙ্গা স্টেশন মাস্টার মিজানুর রহমান জানান, স্টেশন থেকে অবৈধ মালামাল ধরার পরে স্টেশন মাস্টার ও জিআরপি ফাঁড়ি পুলিশের উপস্থিতিতে মালামালের সিজারলিস্ট করার কথা থাকলেও বিজিবি সদস্যরা তা করেননি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।