পুলিশ জনগনের বন্ধু: কুমিল্লার পুলিশ সুপার মাহাবুবর রহমান পিপিএম

জনতাই পুলিশ-পুলিশই জনতা। আমরা যারা আজ পুলিশের পোশাক গায়ে দিয়ে জনগনের সেবা দিচ্ছি তারা  অন্য কোন গ্রহের মানুষ নই। জনতার মধ্য থেকেই এসেছি, চাকুরী শেষে আবার জনতার কাতারেই আমাদের ঠাই হবে। পুলিশ জনগনের বন্ধু কমিউনিটি পুলিশিং তার অন্যতম উদাহরণ। সোমবার কুমিল্লার দেবিদ্বার থানা ও কমিউনিটি পুলিশিং এর যৌথ উদ্দ্যোগে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় কুমিল্লার পুলিশ সুপার মাহাবুবর রহমান পিপিএম প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
সোমবার প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মোঃ জিল্লুর রহমান এর স্মরনে শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করার মাধ্যমে কুমিল্লার দেবিদ্বার থানা ও কমিউনিটি পুলিশিং এর উদ্যোগে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। দেবিদ্বার থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম বদিউজ্জামান এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মাহবুবর রহমান পিপিএম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ হারুন অর রশিদ, দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান এ কে এম সফিকুল আলম কামাল, দেবিদ্বার থানা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সদস্য সচিব পি এ এম সহিদুল্লাহ পলাশ।
মতবিনিময় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, কুমিল্লা উত্তর জেলা মহিলা আ’লীগ সভানেত্রী শিরিন সুলতানা, দেবিদ্বার জোবেদা খাতুন মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল্লাহ মাসুদ, দেবিদ্বার উপজেলা ডেপুটি কমান্ডার মনিরুজ্জামান আউয়াল, কুমিল্লা উত্তর জেলা মহিলা আ’লীগ সভানেত্রী শিরিন সুলতানা, দেবিদ্বার উপজেলা হিন্দু কল্যান পরিষদ এর সভাপতি বাবু নারায়ন চন্দ্র, দেবিদ্বার পৌর আ’লীগ সহ-  সভাপতি ও বিশিষ্ট ব্যবসায়িক হাজী মোঃ কেফায়েত উল্ল্যাহ, ৬নং ফতেহাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কন্দকার এম এ সালাম, দেবিদ্বার পৌর কমিশনার মজিবুর রহমান, দেবিদ্বার উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ যুগ্ন আহবায়ক মোঃ আঃ মান্নান , গুনাইঘর উত্তর আ’লীগ সাধারন সম্পাদক মোঃ ওবায়দুল হাসান রাসেল প্রমুখ।
এর আগে গত রোববার ব্রা‏হ্মণপাড়া থানা প্রাঙ্গনে উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটি এবং থানার যৌথ উদ্দ্যোগে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় কুমিল্লার পুলিশ সুপার মাহাবুবর রহমান পিপিএম বলেন, এই সংগঠনের মাধ্যমে বিভিন্ন অপরাধ নিয়ন্ত্রন সহ মামলার সুষ্ঠ তদšেতর মাধ্যমে জনগনের নিকট কমিউনিটি পুলিশিংকে আরও জনপ্রিয় করা সম্ভব। অপরাধীরা আমাদের সমাজেরি একটি অংশ। তাদের অপরাধের সঠিক তথ্য পুলিশকে জানিয়ে সমাজের সকল অপরাধ নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব। মসজিদের ইমাম সবচেয়ে বড় লিডার, আমার মসজিদের ইমাম একজন কনষ্টেবল। মসজিদে সেই আমার লিডার। তেমনি মসজিদের ইমাম, স্কুলের শিক্ষক, সমাজে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের দ্বারা গঠিত কমিউনিটি পুলিশিং কমিটি ধর্মীয় বিশৃঙ্খলা সহ বিভিন্ন অপরাধ দমনে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে। এক সময় পুলিশ দেখলে মানুষের মনে আতঙ্ক বিরাজ করতো, সেদিন বদলে গেছে। এখন পুলিশ জনগনের বন্ধু। জেলা পর্যায়ের পুলিশ কর্মকর্তাদের মোবাইল নাম্বার সকলের জন্য উন্মুক্ত। থানা পর্যায় কোন পুলিশ কর্মকর্তা অনৈতিক ভাবে মাদক বা অন্য কোন অপরাধের সাথে জড়িত থাকলে আপনারা সরাসরি আমাদের নিকট মোবাইল করে তথ্য জানাবেন। আপনাদের পরিচয় গোপন রাখা হবে, আমরা তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। কোন মামলার মিথ্যা তদšত করলে দিনে রাতে যখন ইচ্ছা আমাদের নিকট মোবাইল করে তথ্য জানাবেন আমরা যথাযত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।