নাঙ্গলকোটে পরকীয়া প্রেমিক পীরের ভাইকে জনতার গণধোলাই

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার মৌকারা দরবার শরীফের পীর নেছার উদ্দিনের ছোট ভাই নিজাম উদ্দীনকে গত শুক্রবার রাতে এক নারীর সাথে অবৈধ রাতযাপনকালে জনতা আটক করেছে। এ সময় উত্তেজিত জনতা তাকে গণধোলাই দিয়ে বেধে রাখে। ঘটনার বিবরণে জানাগেছে, ময়ূরা গ্রামের নব মুসলিমের বিবাহিত মেয়ে নাজমার সাথে বেশ কিছুদিন ধরে নিজামের পরকীয়া প্রেম চলছে। এ সূত্রে প্রায় প্রতিদিনই ওই বাড়ীতে তাকে  যাতায়াত করতে দেখা যায়। ঘটনার দিন গভীর রাতে উভয়ে যৌনসংসর্গে মিলিত হয়।

এ সময় স্থানীয়রা টের পেয়ে তাদের আটক করে। এবং এতরাতে নিজামের আসার কারন জানতে চাইলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে পুরো গ্রাম জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। এতে উত্তেজিত হয়ে জনতা তাকে গণধোলাই দেয়। একপর্যায়ে নিজাম নাজমাকে বিয়ে করেছে দাবি করে। তবে তারা বিয়ের পক্ষে কোন প্রমানাদি দেখাতে পারেনি। পরে শনিবার সকালে তার আত্বীয় স্বজন এসে তাকে পাগল দাবি করে এবং তারা নিজামের বিচার করবে জানিয়ে প্রভাব খাটিয়ে তাকে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় নিজামের বড় ভাই পীর নেছার উদ্দিনের মতামত জানতে চাইলে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। এ ব্যাপারে নাঙ্গলকোট থানার পরিদর্শক (ওসি) স্বপন কুমার নাথ জানিয়েছে, বিষয়টি আমি জেনেছি। তবে কেউ বাদি না হওয়ায় ব্যবস্থা নিতে পারিনি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।