সাগরে জেলে হত্যাকারী সন্দেহে ওয়াসিম ডাকাত গ্রেফতার

বঙ্গোপসাগরে ৩৬ জেলে হত্যায় অংশগ্রহণকারী সন্দেহে ওয়াসিম নামে এক ব্যাক্তিকে জনতা পুলিশে সোপর্দ করেছে। মহেশখালীর মাতারবাড়ি পুলিশ ক্যাম্পের আইসি এ.এস.আই মোহাম্মদ হানিফ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। গ্রেফতারকৃত ওয়াসিম উপজেলার মাতারবাড়ি ইউনিয়নের রাজঘাট এলাকার আকতার আহমদের পুত্র।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, মহেশখালীর কালারমারছড়া ইউনিয়নের চালিয়াতলী এলাকার নিহত বজল বাহিনীর সেকেন্ডইন কমান্ড দেলোয়ার হোসেন (ঠুইট্যার) নেতৃত্বে ২৫/৩০ জনের সস্ত্রস ডাকাত গত ২৬ মার্চ বঙ্গপসাগরে জেলেদের উপর তান্ডব চালিয়ে ৩৬ জেলেকে নিনর্মভাবে হত্যা করে। ডাকাতদের ব্যবহারিত  ট্রলারটি সাগরে নিলজ্জিত হলেও নিরাপদে ফিরে আসে ডাকাতরা। এ সময় ডাকাতদের মধ্যে নেজাম উদ্দিন নেজাইয়া গুরুতর আহত হয়ে গোপনে চিকিৎসা নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। মঙ্গলবার ২১ লাশ উদ্ধার হলে জনগন ক্ষুব্ধ হয়ে গতকাল বুধবার দুপুরে ওয়াসিমকে আটক করেছে।
অপর একটি সুত্রে জানা যায়, ডাকাতদের মধ্যে বাঁশখালী, কুতুবদিয়া ও মহেশখালী কালারমারছড়ার বেশ করেকজন ডাকাত জড়িত রয়েছে বলে জানা গেছে। ওয়াসিম স্বীকার করেন মহেশখালীর কালারমারছড়ার ইউনিয়নের চালিয়াতলী এলাকার ছাবের আহমদের পুত্র দেলোয়ার হোসেন টুইট্টা, উলা মিয়ার পুত্র নেজাম উদ্দিন নেজাইয়া, বদিউল আলমের পুত্র ফরিদুল আলম, মনিয়া, শেখ আহমদ (প্রকাশ শেইক্কা), নেয়ামত উল¬াহ মধু, জনু ডাকাত, বদি আলম বদ্দ্যা, সোনাইয়া ডাকাত সহ প্রায় ৩০ জনের সংঘবদ্ধ একদল ডাকাত দল  এ হত্যাকান্ডে অংশগ্রহন করেছে ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।