টেকনাফ সদরের পল্লান পাড়া ব্রীজটি এখন মরণ ফাদেঁ পরিণত

সীমান্ত উপজেলা টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নতুন পল্লান পাড়া এলাকার জনগুরুত্বপূর্ণ চলাচলের রাস্তার  ব্রীজ এখন মরণ  ফাদেঁ পরিণত হয়েছে। যে কোন সময় মারাত্বক দূর্ঘটনা ঘটার আশংকা রয়েছে । স্থানীয় জনসাধারণ এই নিয়ে হতাশার মধ্যে ভূগছেন । এই সড়ক হচ্ছে নতুন পল¬ান পাড়া ,ধুম পাড়াং ,পশ্চিম গোদার বিল , মহেষখালীয়া পাড়া , তুলাতুলী , উচ্ছ গ্রাম , দঃ লেঙ্গুর বিল , দঃ লম্বরী ও সী বীচ পর্যন্ত মেরিন ড্রইভ চলে গেছে। উক্ত সড়ক দিয়ে সামুদ্রিক আহরিত মৎস্য সম্পদ পান , কাঠ ,লবণ ,সুপারী,তরমুজ ,ও তরীতরকারী সহজেই স্থানীয় বাজারে বাজারজাত করণে বাধা গ্রস্থ হচ্ছে । আসন্ন বর্ষা মৌসুমের আগে উক্ত সড়কের ব্রীজটি মেরামত বা পূর্ণ নিমার্ণ না হলে  উক্ত এলাকার জনসাধারণ নানা ধরণের দূর্ভোগের শিকার হবে। এমন আশংকা করছেন এলাকাবাসী । এদিকে সড়কের অবস্থা ভাল থাকলে ও ব্রীজের অবস্থা ঝুকিপূর্ণ তাই যানবাহন গুলোর চালক হেলপার ও যাত্রী সাধারণ জীবনের ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে । যে কোন মূহুতে ঝুকিপূর্ণ ব্রীজ ধ্বসে পড়ে বড় ধরণের প্রাণহানির হওয়ার আশংকা করছেন চালক, হেলপার ও যাত্রীগণ । সরেজমিনে পরির্দশন করে দেখা যায় ,রোগী ও স্কুল ছাত্রছাত্রী ও পথচারীদের সীমাহীন দূর্ভোগ এবং কাচাঁপন্য সামগ্রী নিধার্রিত সময়ে বাজারে পোছাঁতে  না পারায় লোকসান গুনতে হচ্ছে ক্রেতাদের ।  এলাকার সচেতন মহলের পক্ষে টেকনাফ পেপার বিতানের পত্রিকা হকার কামাল হোসেন বলেন  দীর্ঘদিন পর্যন্ত চেয়ারম্যান ও স্ব স্ব ওয়ার্ডের মেম্বারদের রাস্তা ঝুকিপূণ অবগত করা হলে ও আজ পর্যন্ত তার কোন ব্যবস্থা নিওয়া হচ্ছে না । তিনি আরও বলেন- গত বছর নির্মাণ করে বিভিন্ন নির্মাণ কাজে অনিয়মের ফলে প্রতিনিয়ত ব্রীজটি মরণ ফাঁদে পরিণত হয়। এ ব্যাপারে সিরাজুল ইসলাম বলেন আমি ঝুকিপূর্ণ ব্রীজের ব্যাপারে চেয়ারম্যান সহ পরিদর্শন করেছি । এব্যাপারে চেয়ারম্যান নুরুল আলম জানান- স্থানীয় কিছু লোকের কারণে এ ব্রীজটির এই অবস্থা হয়েছে। শীঘ্রই এই ব্রীজের কাজ করা হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।