অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করায় এক দলীয় কর্মীকে পিটিয়ে হত্যা

জেলার আত্রাই উপজেলার বিশা ইউনিয়নের ইসলামগাঁথী গ্রামে আওয়ামী লীগের নেতাদের নানা অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করায় পুলক সরকার নামে এক দলীয় কর্মীকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহত পুলক কুমার ইসলামগাঁথী গ্রামরে মৃত সুশীল সরকারের ছেলে।

আত্রাই থানার ওসি আব্দুল লতিফ খান খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, নিহতের ঘটনায় পুলকের স্ত্রী পুতুল সরকার বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে ইসলামগাঁথী বাজারের মদনের দোকানে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আজিজুল ইসলাম ও ১ নং ওয়ার্ড সভাপতি ইব্রাহীমসহ ১০/১২ জন পূর্বশত্রুতার জের ধরে পুলক কুমার সরকারকে (৪২) আটক করে।

পরে তারা কোমল পানীয়ের বোতলে গরম পানি ভরে এবং লাঠি দিয়ে পুলককে বেধড়ক মারপিট করে। এতে পুলক গুরুতর আহত হলে পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার ভোরে পুলক মারা যান।

এ ব্যাপারে নিহত পুলকের স্ত্রী পুতুল সরকার বাদী হয়ে আত্রাই থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনও কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

আত্রাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দুলাল দত্ত হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে বলেন, ‘পুলক সরকার প্রতিবাদী যুবক। দলীয় নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ায় অনেকের বিরাগভাজন ছিল।’

স্বভাব অনুযায়ী দলীয় নেতাকর্মীদের বিভিন্ন অনৈতিক কাজ, জমি দখল, অর্থের বিনিময়ে দোকানের পজিশন দখল করে দেয়া, চাঁদাবাজি, টিআর কাবিখা ইত্যাদি প্রকল্প থেকে নিয়মিত অর্থগ্রহণে পুলক বাধা দিত বলেও জানান তিনি।

আত্রাই থানার ওসি আব্দুল লতিফ খান জানান, পুলক কুমার স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বিভিন্ন অনৈতিক কাজের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ায় তাকে খুন করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।