শিশু ধর্ষনের ৪০ দিনেও ধর্ষক গ্রেফতার হয়নি

কুমিল্লা সদর দক্ষিণে শিশু ধর্ষনের  ৪০ দিনেও ধর্ষক গ্রেফতার না হওয়ায় স্থানীয়দের মাঝে পুলিশের ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।
সূত্র জানায়, উপজেলার বিজয়পুর ইউনিয়নের নোয়াপাড়া ধরনীবন্দ গ্রামের বেবী চালক মোবারক হোসেনের কন্যা ও হোসেনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেণির ছাত্রী নাছরিন আক্তার পিংকি (৬) ৭ মার্চ সকালে সহপাঠীদের সাথে স্কুলে যায়। অন্যন্য দিনের ন্যায় স্কুল ছুটির পর দুপুর সাড়ে ১২টায় বাড়ী ফিরে আসে। পরে স্কুল ড্রেস পরিবর্তন করে পাশ্ববর্তী   (হোসেনপুর) হাজী আশরাফ আলীর বাড়ীর আঙ্গিনায় বরই কুড়াতে গেলে হোসেনপুর গ্রামের আবদুল ফরিদের বখাটে পুত্র সাইফুল ইসলাম (১৮) বরই খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে পরিত্যক্ত একটি টিনসেট ঘরে নিয়ে জোড় পূর্বক ধর্ষন করে। এসময় পিংকির শোরচিৎকারে রাবেয়া খাতুন নামের এক মহিলাসহ স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সাইফুল পালিয়ে যায়। এবিষয়ে ঘটনার দিন রাতে পিংকির পিতা বাদী হয়ে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় বখাটে সাইফুলকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। মামলা নং ০৬। মামলার সংবাদ পেয়ে আসামী সাইফুল ও তার পরিবারের লোকজন ভিকটিম পরিবারকে মামলা প্রত্যাহারের জন্য  হুমকি ধমকি দেয় এবং আপোষ মিমাংশার জন্য প্রভাবশালীদের দিয়ে চাপ সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ করেন পিংকির পিতা মোবারক। এদিকে ঘটনার ৪০ দিনেও আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় ভিকটিম পরিবারের প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে অভিযোগ তুলেছেন। মোবাইল ফোনে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই ওমর ফারুক জানায় বলেন, আসামী পলাতক  গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।