সোনাগাজীতে কালবৈশাখীর ঝড়ে ঘর-বাড়ি লন্ডভন্ড ॥ আহত ৫

সোনাগাজী উপজেলার উপকুলীয় চরচান্দিয়া ও চরদরবেশ ইউনিয়নের ৫টি গ্রামে বুধবার সকালের দিকে কালবৈশাখীর ঝড়ে ঘর বাড়ি লন্ডভন্ড সহ ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। এ সময় গাছ ও ঘরের চাল পড়ে ৫ জন আহত হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, চরদরবেশ ইউনিয়নের দঃ চরদরবেশ গ্রাম, আদর্শগ্রাম ও নুরাণী বাজার এলাকায় হঠাৎ আকস্মিক কাবৈশাখীর ঝড়ে বেশ কয়েকটি দোকান সহ অর্ধশত ঘর বাড়ি বির্ধ্বস্ত হয়। এ সময় প্রচন্ড ঝড়ো হাওয়া ও শিলাবৃষ্টির আঘাতে ফসলের ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি সহ আবদূল কাদের, আবদূল মন্নান, ইসমাইল হোসেন আহত হয়েছেন। অপর দিকে ঝড়ে আঘাতে বিভিন্ন স্থানে গাছের গোড়া উপড়ে পড়ে এবং গাছ ভেঙ্গে রাস্তায় পড়ায় জনসাধারণের চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। এ দিকে একই সময় চরচান্দিয়া ইউনিয়নের মধ্যম চরচান্দিয়া, দঃ চরচান্দিয়া গ্রাম, দঃ পুর্ব চরচান্দিয়া গ্রামের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ঝড়ের আঘাতে অর্ধশত ঘর বাড়ি বির্ধ্বস্ত হয়। ঝড়ের আঘাতে আদর্শগ্রাম দারুল উলুম আশ্রাফিয়া মাদরাসার ২টি ঘর ও দঃ পুর্ব চরচান্দিয়া গ্রামের জিন্নাত আলী জামে মসজিদের একাংশ উড়ে যায়। দেখা যায়, এক স্থানের ঘরের চালা অন্যস্থানে উড়িয়ে নিয়ে যায়। এলাকার হতদরিদ্র লোকজন ঝড়ের আঘাতে সর্বশান্ত হয়ে সবকিছু হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে দিন যাপন করছে। কাল বৈশাখী ঝড়ো হাওয়ার সাথে প্রচন্ড আকারে বড় বড় শিলাবৃষ্টি পড়ায় বাড়ি ঘর সহ ফসলের ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। খবর পেয়ে সোনাগাজী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরুজ্জামান বকাউল, সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সুভাষ চন্দ্র পাল, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ণ কর্মকর্তা মিল্টন দস্তীদার, চরদরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, চরাচন্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন খোকন ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদেরকে সাহায্যের আশ্বাস প্রদান করেন। উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়,কাল বৈশাখীর আঘাতে উক্ত দুটি ইউনিয়নের ৮৫টি ঘর, বাড়ি বির্ধ্বস্ত হয়েছে বলে তালিকাভূক্ত করে দ্রুত ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে সাহায্য প্রদানের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসকের বরাবরে আবেদন পাঠানো হয়েছে।

 

সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।