প্রধান শিক্ষক কর্তৃক সংখ্যালঘু শিক্ষককে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ হারবাংয়ে

চকরিয়া হারবাংয়ে শিক্ষার্থীদের সামনে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কর্তৃক একই প্রতিষ্ঠানের সংখ্যালঘু এক শিক্ষককে বেধড়ক মারধরের গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। বকেয়া বেতন চাওয়ার জের ধরে ঘটনাটি ঘটে হারবাং আদর্শ একাডেমী নামের একটি কেজি স্কুলে।
জানা গেছে, উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের ষ্টেশন সংলগ্ন শান্তিনগর এলাকায় ২০০৪সালে গড়ে উঠা হারবাং আদর্শ একাডেমীতে একই এলাকার সংখ্যালঘু চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে কর্মরত দপ্তরী অশোক মল্লিকের পুত্র অসীম মল্লিক রাজু দীর্ঘ ৩বছর যাবৎ গণিত শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন। আড়াইশ শিক্ষার্থীর এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওই শিক্ষক সুনামের সাথে দৈনন্দিন পাঠদান কার্যক্রমও চালিয়ে আসছে। এরইমধ্যে বিদ্যালয়ের প্রধান মোঃ সাইফুল ইসলাম গণিত শিক্ষক অসীম মল্লিক রাজুর ৪মাসের বেতন ভাতা বন্ধ দেয়। সংখ্যালঘু শিক্ষক অসীম মল্লিক রাজু জানান, প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে ওই বকেয়া বেতন চাইতে গেলে দেয়া হবে না বলে সাফ জবাব দিয়ে অন্যান্য শিক্ষকদের সামনে তাকে লাঞ্চিত করে তাড়িয়ে দেয়। সর্বশেষ গত ১৫এপ্রিল সোমবার সকাল ১১টার দিকে শিক্ষক অসীম মল্লিককে বেতন দেওয়ার কথা বলে বিদ্যালয়ে ডেকে নিয়ে গিয়ে অপরাপর শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের সামনে তাকে এলোপাড়াড়ি মারধর করে প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম। এতে সে গুরুতর আহত হয়। আহত ওই শিক্ষক আরো জানান, প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম জামাতের লোক। তাই কাউকে এ ঘটনার বিচার না দিতে প্রধান শিক্ষক কর্তৃক মারবে-ধরবে ও প্রাণে হত্যাসহ লাশ গুম করে ফেলার হুমকি প্রদান করে। সেই ভয়ে কোন দপ্তরে বিচার কিংবা অভিযোগ জানাতে পারেনি বলে ভূক্তভোগি শিক্ষক দাবি করেন।
এদিকে শিক্ষক অসীম মল্লিক রাজুর পিতা অশোক মল্লিক সাংবাদিকদের জানান, এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। অপরদিকে ঘটনা প্রসঙ্গে জানতে প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলামের কাছে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।