কুমিল্লার লাকসামে আগুনে পুড়ে ২টি বসত ঘর ভষ্মিভুত

শনিবার কুমিল্লার লাকসামে দমকল বাহিনীর অবহেলায় আগুনে পুড়ে ২টি বসত ঘর ভস্মিভুত হয়েছে।  আগুন পুড়ে যাওয়ায় কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়। প্রত্যক্ষ সূত্রে জানা যায়, ওইদিন আনুমানিক বেলা ১১ ঘটিকার সময় উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামের মৃত সুরুজ মিয়ার ছেলে ব্যবসায়ী আবদুল মুনাফের বসত ঘরে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। মূহূর্তের মাঝে আগুনের লেলিহান শিখায় ১টি বসত ঘর ও ১টি পড়ার ঘর (কাচারী), ওইঘরে থাকা ব্যাংক চেক, বীমা দলিল, বাড়ীর দলিলপত্র ও ¯¦র্ণালংকারসহ প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধিত হয়। আগুন লাগার সাথে সাথে একাধিক মোবাইলে দমকল বাহিনীকে অবহিত করার প্রায় ১ ঘন্টার পর ঘটনাস্থলে পৌছার আগেই ঘর ২টি মালামালসহ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। পাশ্ববর্তী বাড়ীর মৃত আবুল কালামের ছেলে মাসুদুর রহমান ও একই বাড়ীর মাষ্টার ছেরাজুল ইসলামের ছেলে  জুয়েল হোসেন আগুন লাগার সাথে সাথেই দমকল বাহিনীকে অবহিত করেন। লাকসাম দমকল বাহিনী আসতে গড়িমসি করায় ঘন্টা খানিকের মাঝে ঘরগুলো পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ঘর ২টি পুড়ে যাওয়ার পর দমকল বাহিনী যাওয়ায় স্থানীয়রা দমকল বাহিনীর লোকজনের উপর চড়াও হয়। এতে দমকল বাহিনী লোকজন দায়সারাতে পুড়ে যাওয়া ঘরে পানি নিক্ষেপ করে। আগুনে ঘর ২টি পুড়ে যাওয়ার বিষয়ে একাধিকবার ফোন করারপরও   দেরীতে আসায় কারনে দমকল বাহিনীর ষ্টেশন মাষ্টার মঞ্জুরুল হাসান জানান, আগুনের খবর পাওয়ার সময়  আমরা অপ্রস্তুত ছিলাম, এবং রাস্তায় যানজট থাকার কারনে আসতে দেরী হয়েছে। আগুন লাগার বিষয়ে তিনি জানান, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।