দাউদকান্দিতে ৪ লেনের কাজ পরিদর্শন করলেন যোগাযোগ মন্ত্রী

আজ শুক্রবার সকাল ১০টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দি উপজেলার শহীদনগরে ৪ লেনের দ্বিতীয় পর্যয়ের কার্পেটিং এর কাজ পরিদর্শন করেন যোগাযোগমস্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ সময়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ৪ লেনের কাজের ফান্ডের কোন সমস্যা নেই। এ সময় তিনি দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে  কথা বলেন, যোগাযোগমস্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, সংলাপকে ফলপ্রসূ করতে হলে  দু’দলকে খোলা মন নিয়ে বসতে হবে এবং সংলাপকে অর্থবহ করতে হলে সরকারীদল ও বিরোধীদলকে ছাড় দিতে হবে। আর নতুবা মান্নান ভুঁইয়া ও আব্দুল জলিলের সংলাপের মতোই সংলাপ হবে অর্থহীন। তিনি শুক্রবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দির শহীদনগরের ৪ লেন সড়কের কাজ পরিদর্শনকালে এসব কথা ।

তিনি বলেন, সবার উপড়ে দেশ, সবার উপড়ে গণতন্ত্র এমন মানসিকতা নিয়ে আমাদের সংলাপে বসতে হবে। আমি কোন ছাড় দিবনা। এ মন নিয়ে বসলে এ সংলাপ হবে অর্থহীন । কাজেই সংলাপকে অর্থবহ করতে হলে খোলা মন নিয়ে বসতে হবে। দেশে এবং বিদেশে একটা গ্রহণ যোগ্য একটা নির্বাচন আমরা করব। সেই লক্ষ্যটা ঠিক রেখে বর্তমানে যে সহিষ্ণ পরিস্থিতি সাভারের বিপর্যয়থেকে শুরু করে আরো অনেক গুলো ঘটনা দেশে আসা বিধংসী আলোড়নের সৃষ্টি করেছে যেটা দেশের ভাবমূর্তিকে ক্ষুন্ন করেছে।

বাংলাদেশকে পিছিয়ে দিয়ে আমরা যদি ভবিষৎতের ক্ষমতার স্বপ্ন দেখি।সেটা বৃথা স্বপ্ন দেখা হবে। বাংলাদেশকে সমৃদ্ধ করে,বাংলঅদেশের ভাবর্মর্তি উজ্জ্বল রেখে, বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ জাতি হিসেবে রেখেএবং সে ধারাটাকে অব্যহত রেখেই আমাদের সবাইকে চিন্তা করতে হবে। কারণ সরকার আসবে সরকার যাবে দেশতো থাকবে। দেশ যদি পিছিয়ে থাকে আজকে যারা বিরোধীদল তারা ভবিষৎতে ক্ষতায় গেলেও ওই পিছিয়ে পড়া থেকে তাদের শুরু করতে হবে।কাজেই দেশটাকে পিছিয়ে দিয়ে দেশের ভাবমূতি আজকে ক্ষুন্ন হয় তাহলে এ ভাবমূর্তি ফিরে পাওয়া এত সহজ নয়।

তিনি হেফাজত ইসলাম কে মানবিক দিক বিবেচনা করে ঢাকার অবরোধ প্রত্যাহার করার আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশকে পিছিয়ে দিয়ে ক্ষমতায় যাওয়া ঠিক  হবেনা। ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হলে যে অন্য সরকার ক্ষমতায় এলেও দেশ চালাতে পারবেনা। পরে যোগাযোগ মন্ত্রী গৌরিপুর হোমনা সড়ক ও মতলব পেন্নাই সড়ক পরিদর্শন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সড়ক জনপদ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী  মফিজুল ইসলাম, ৪লেন প্রকল্পের পরিচালক ইবনে আলম হাসান, সহকারী প্রকল্প পরিচালক আফতাব হোসেন খাঁন কুমিল্লা সড়ক ও জনপদের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী রুহুল আমিন, নিবাহী প্রকৌশলী আব্দুর রহিম ও ৪লেনের প্রজেক্ট ম্যানাজার সামছু উদ্দিন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সড়ক জনপদ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী  মফিজুল ইসলাম, ৪লেন প্রকল্পের পরিচালক ইবনে আলম হাসান, সহকারী প্রকল্প পরিচালক আফতাব হোসেন খাঁন কুমিল্লা সড়ক ও জনপদের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী রুহুল আমিন, নিবাহী প্রকৌশলী আব্দুর রহিম ও ৪লেনের প্রজেক্ট ম্যানাজার সামছু উদ্দিন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।