কক্সবাজার পৌরসভার অনিয়ম দূর্নীতির দায়ে পদ হারানো আতংকে রাজবিহারী

কক্সবাজার পৌরসভার নানা অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার কারনে পদ হারানোর আতংকে ভারপ্রাপ্ত মেয়র। স্থানীয় সরকারের সচিবের তোপের মুখে পড়ে হাবু-ডোবু খাচ্ছে দূর্নীতিবাজ ওই ভারপ্রাপ্ত মেয়র। যেকোন মুর্হুতে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের পদ হারাতে পারে বলে ধারনা করছে কক্সবাজার সচেতন মহল। পৌরসভা সুত্রে জানা যায়, ২বছর ৭মাস ধরে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে কক্সবাজার পৌরসভার উন্নয়ন কাজের নামে নানা অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতা চালিয়ে আসচ্ছে রাজ বিহারী দাশ। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে শুরু করে দাতা সংস্থার তদন্তদল একাধিক বার তদন্ত করে তাকে হুঁশিয়ারী দিয়ে যায়। সর্বশেষ ৩ মে কক্সবাজার পৌরসভার নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত করতে আসে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু আলম শহীদ খান। এসময় বড় বাজেটের একটি ড্রেনেজ উন্নয়ন প্রকল্পে অনিয়মের বিষয়ে সচিবের তোপের মুখে পড়ে ভারপ্রাপ্ত মেয়র। সচিব ভারপ্রাপ্ত মেয়রকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, এমনিতে পৌরসভার প্রতিটি কাজে অভিযোগের পাহাড়। এভাবে অনেক অভিযোগ আগেও ছিল, আর সহ্য করা হবে না। তাছাড়া আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে আরো একটি তদন্ত দল কক্সবাজার আসবে বলে জানান সচিব। উল্লেখ্য যে, এর আগে পর্যটন মন্ত্রী ফারুক খান এমপি’র তোপের মুখে পড়ে বীচ ম্যানেজম্যান্ট কমিটির সভা থেকে বের হয়ে যায় ভারপ্রাপ্ত মেয়র রাজ বিহারী দাশ। এব্যাপারে কক্সবাজার পৌরসভার পক্ষ থেকে সচেতন নাগরিক কমিটির নেতা আবদুল হক দাবী জানিয়ে বলেন পৌরসভাকে রক্ষা করার জন্য পৌরবাসী এই দূর্নীতিবাজ ভারপ্রাপ্ত মেয়রকে অপসারণের দাবী করেছেন ।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।