হাইকোর্ট (ডিসিসি) নির্বাচন নিয়ে জারি করা রিট খারিজ: আইনগত আর কোনো বাধা থাকলো না

হাইকোর্ট ঢাকা সিটি করপোরেশন (ডিসিসি) নির্বাচন নিয়ে জারি করা রিট খারিজ করে দিয়েছেন। এর ফলে ডিসিসি দক্ষিণ ও ডিসিসি উত্তরের নির্বাচনের আইনগত আর কোনো বাধা থাকলো না। সোমবার বিচারপতি বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। শুনানি শেষে নির্বাচন কমিশনের আইনজীবী ড. শাহদীন মালিক সাংবাদিকদের বিষয়টি জানিয়েছেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন, অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। নির্বাচন কমিশনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শাহ্দীন মালিক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মোখলেছুর রহমান।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৯ এপ্রিল উত্তর ও দক্ষিণ ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

পরে এই তফসিল ঘোষণার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে এবং ডিসিসির নির্বাচনের ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে হাইকোর্টে একটি রিট মামলা দায়ের করা হয়।

এ রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গত বছরের ১৬ এপ্রিল বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ ডিসিসির নির্বাচনের যাবতীয় কার্যক্রম স্থগিত করেন।

একই সঙ্গে নির্বাচনের তিন মাস আগে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করা এবং আইনানুযায়ী এ সময়ের মধ্যে কাউন্সিলরের সংখ্যা ও ওয়ার্ডের সংখ্যা নির্ধারণ করতে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) নির্দেশ দেন আদালত।

এছাড়া আইনের কয়েকটি ধারার যথাযথ বিধান অনুসরণ করে নির্বাচন অনুষ্ঠানের নির্দেশ কেন দেয়া হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও স্থানীয় সরকার সচিবসহ আটজনকে দুই সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়।

হাইকোর্টের এ আদেশের পরে নির্বাচন কমিশনসহ রিটের বিবাদীরা জবাব না দেয়ায় কয়েক দফায় নির্বাচনের ওপর দেয়া স্থগিতাদেশের মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়।

সর্বশেষ গত ৮ জানুয়ারি হাইকোর্ট ডিসিসির নির্বাচনের ওপর দেয়া স্থগিতাদেশের মেয়াদ তিন মাসের জন্য বৃদ্ধি করেন। এরপর গত মার্চ মাসে রিট আবেদনটির নিষ্পত্তির উদ্যোগ গ্রহণ করে সরকার পক্ষ।

দৈনিক ইত্তেফাকের একটি সংবাদ আদালতে উপস্থাপন করে মনজিল বলেছিলেন, ‘নতুন পাঁচ লাখ ভোটার হওয়ার যোগ্য লোক ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে পারেননি। ভোটার তালিকা হালনাগাদ না করায় তারা ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত রয়েছেন।’

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।