রায়পুরে মা’র বিরুদ্ধে শিশুকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

রায়পুরে মা’র বিরুদ্ধে শিশুকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ



তাবারক হোসেন আজাদ, রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার দক্ষিণ চরমহনা গ্রামের রোববার (১৩ অক্টোবর) সকালে স্বামীর সাথে অভিমান করে আছ্র্রিয়ে নিজ শিশু সন্তানকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে সেলিনা আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধুর বিরুদ্ধে। পরে আহত শিশুকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেয়া হয়েছে। থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

শিশুটির পিতা দিনমজুর  মো. ফয়েজ আহম্মেদ জানান, তিনি সদর উপজেলার খিদিরপুর গ্রামের মো. হানিফের মেয়ে সেলিনাকে প্রায় ৪ বছর আগে বিয়ে করেন। বিয়ের পর তাদের উভয়ের পারিবারিক দন্ধ চলে আসছে। এরই মাঝে উভয় পরিবারের পাল্টাপাল্টি মামলায় তিনি ৪৯ দিন ও শ্যালক সামছুল ইসলাম ১ দিন কারাভোগ করেন। পরে তা গ্রামের শালিস-বৈঠকে মিমাংসা হয়। কিন্তু তার শশুর মো. হানিফ মিয়া আমার বিরুদ্ধে আমার স্ত্রীকে দিয়ে নানান ষড়যন্ত্র ও ওই মামলায় ক্ষতিপূরণ বাবদ ২ লাখ টাকা দাবি করে আসছেন। এ টাকা দেয়ার জন্য কয়েদিন আগে আমার স্ত্রীও আমাকে হুমকি দিয়েছে। এর জের ধরে সকাল ৯ টায় তার ৪৯দিন বয়সের ইয়াসিন আরাফাত নামের শিশু সন্তানকে নিয়ে তার পরিবারের যোগসাজসে বাড়ী থেকে পালিয়ে  বাবার বাড়ী চলে যাছিলো সেলিনা। এসময় বাড়ীর লোকজন তাকে দেখে আটক করে বাড়ীতে নিয়ে এসে আমাকে সংবাদ দেয়। তিনি বাড়ীতে আসার দেরি হওয়ায় এসুযোগে সেলিনা শিশুকে মেরে ফেলার উদ্দশ্যে আছ্রিয়ে ও শ্বাসরোধ করে মারাত্মক আহত করে। এসময় বাড়ীর এক শিশু ঘটনাটি দেখে চিৎকার দিলে আমার মাসহ বাড়ীর লোজন এসে শিশুটিকের তার কাছ থেকে উদ্ধার করে। পরে সে বাড়ীতে এসে শিশুটিকে হাসপাতালে এনে চিকিৎসা দেয়।

এব্যাপারে শিশুটির মা সেলিনা আক্তার জানান, সকালের ঘটনায় স্বামীর সাথে অভিমান করে আমার বাচ্চাকে খাটে রেখে ঘরের বাহিরে চলে যাই। পরে এসে দেখি মাটিতে পড়ে চিৎকার করছে। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্য না।
রায়পুর থানা পরির্দশক (ওসি/তদন্ত) নাসিরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, শিশুটিকে নিয়ে তার পিতা ফয়েজ থানা আসে। তখন শিশুটিকে চিকিৎসা দিয়ে থানা মামলা করার  পরামর্শ দেয়া হয়েছে।


এ সম্পর্কিত আরো খবর