কুমিল্লার বুড়িচংয়ে পুলিশ-শিবির সংঘর্ষ, আহত ৭

কুমিল্লার বুড়িচংয়ে পুলিশ ও শিবিরের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে পুলিশসহ ৭ জন আহত হয়। শনিবার দুপুর ১২ টার দিকে মহাসড়কে বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের কালাকছুয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
এ সময় ঘটনাস্থল থেকে শাহ জালাল নামে এক শিবির কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।
প্রত্যদর্শী সুত্রে জানা যায়, দেশব্যাপী টানা ৭২ ঘন্টার অবরোধের প্রথম দিনে শনিবার সোয়া ১১টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বুড়িচং উপজেলায় পুলিশের সাথে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। এতে উভয় পরে সংঘর্ষে শাহ আলম নামে ১ পুলিশ কন্সটেবল আহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিবিরের এক কর্মীকে আটক করেছে।
এ সময় কমপে ১৫ টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে কয়েক রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছুঁড়ে।
বুড়িচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম জানান, দুপুর ১২টার দিকে মহাসড়কের কালাকছুয়া এলাকায় শিবির কর্মীরা মহাসড়ক অবরোধ করার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গেলে তারা পুলিশকে ল্য করে ককটেল নিপে করে।
তিনি আরো বলেন, এ সময় আমি ও শাহ আলম নামে আমাদের এক কনষ্টেবল আহত হয়। পরে আত্মরার্থে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সর্টগানের ৫ রাউন্ড গুলি ব্যবহার করা হয়।
এ বিষয়ে কুমিল্লা (উত্তর) জেলা ছাত্রশিবির সভাপতি লুৎফুর রহমান খান মাসুম জানান, আমারা শান্তিপূর্ণভাবে অবরোধ পালন করছিলাম। পুলিশ হঠাৎ অন্যায়ভাবে আমাদের কর্মীদের উপর লাঠিচার্জ ও গুলি বর্ষণ করে। এতে শিবিরের ৫ কর্মী আহত হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।