চকরিয়ায় নিহত ব্যবসায়ী জাকের হোসেনের জানাযায় জনতার ঢল

কক্সবাজরের  চকরিয়া উপজেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হালিমের নামাযে জানাযা শেষে ফেরার পথে ২৯নভেম্বর বিনা উস্কানিতে পুলিশ ও সরকার দলীয় সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের নির্বিচার গুলীবর্ষণে নিহত ব্যবসায়ী জাকের হোসেনের নামাযে জানাযা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। মাওলানা কুতুব উদ্দিন হেলালীর ইমামতিতে অনুষ্ঠিত জানাযার নামাযে শোকার্ত মানুষের ঢল নামে।
এদিকে নামার চিরিংগাস্থ পুরাতন জামে মসজিদ ময়দানে মরহুম জাকের হোসেনের জানাযা পূর্ব সমাবেশে নিহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে বক্তব্য রাখেন অধ্য মাওলানা কফিল উদ্দিন ফারুক, পরিবারের প থেকে মরহুমের ছোট ভাই আমির হোসেন ও ভাতিজা আবদুল মজিদ।
এদিকে শনিবার ময়না তদন্ত শেষে বিকাল ২টার দিকে নিহতের লাশ বাড়িতে পৌঁছালে স্বজনদের আহাজারিতে এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে। স্ত্রী, সন্তান এবং স্বজনদের দাবি, নিহত জাকের হোসেন (৪৮) কোন সময় রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেননা। এমনকি সভা-সমাবেশেও যাননি কোনদিন। এরপরও কেন তাকে নির্মমভাবে গুলী করে হত্যা করা হলো। তারা এর বিচার মহান আল্লাহ তাআলার কাছে কামনা করেন। একপর্যায়ে সেখানে কান্নার রোল পড়ে যায়। নিহতের পরিবারে স্ত্রী, ৫কন্যা ও ১ ছেলে সন্তান এবং বৃদ্ধা মা রয়েছে। বর্তমানে অসহায় এ পরিবারের দায়ভার কে নেবে? কোথায় গিয়ে ঠাঁই হবে তাদের? জাতির কাছে এমন প্রশ্ন এতিম সন্তান ও বিধবা স্ত্রীর।
অন্যদিকে ঘটনা প্রসঙ্গে চকরিয়া থানার ওসি রনজিত কুমার বড়–য়া জানান, জাকের হোসেন হত্যাকান্ডের সাথে থানা পুলিশ জড়িত নয়। কে বা কারা এ হত্যাকান্ডটি ঘটিয়েছে, তার তদন্ত করা হচ্ছে।
এদিকে বিভিন্ন পেশাজীবি, সামাজিক সংগঠন, এবং এলাকাবাসী নির্মম এ হত্যাকান্ডে জড়িত দুস্কৃতিকারীদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও বিচার দাবি করেছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।