ভারত প্রিয় সরকারের পায়ের নীচের মাটি সরে গেছে

ভারত প্রিয় সরকারের পায়ের নীচের মাটি সরে যাওয়ায় অস্তিত সংকটে পড়ে বর্তমান আ’লীগ সরকার পুলিশ ও দলীয় সশস্ত্র সন্ত্রাসীবাহিনীকে লেলিয়ে দিয়ে প্রকাশ্যে গুলি করে সাধারণ জনগণকে হত্যা করছে। পুরো দেশকে পুলিশী রাজ্যে পরিণত করে বিরোধীদলের আন্দোলন সংগ্রামকে দমানোর চেষ্টা চালিয়েও ব্যর্থ হচ্ছে। এমনকি আগামী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিজেদের ভোটের ভরাডুবি ও পরাজয় বুঝতে পেরে পার্শ্ববর্তী ভারতের সাথে গোপনে আতাত করে অসৎ উপায় অবলম্বন করে বিএনপি তথা ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদেরকে নির্বিচারে হত্যা ও জেলে রেখে আবার মতায় আসার স্বপ্ন দেখছে। কিন্তু তাদের এ স্বপ্ন আর বাংলার মাটিতে বাস্তবায়িত হবে না। দেশের জনগণ নির্দলীয় নিরপে তত্তাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চায়। কিন্তু তত্তাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে আ’লীগ সরকার আর কখনো মতায় আসবে না এ কথা বুঝতে পেরে তারা সংবিধান আগোচালো ভাবে পরিবর্তন করে পুরো দেশে একদলীয় বাকশাল কায়েম করার পায়তারা করছে। এছাড়াও সরকার দলীয় বিভিন্ন সন্ত্রাসীরা বিএনপি-জামায়াতের মিছিলের ভিতরে ঢুকে পুলিশ সহ বিভিন্ন আইনশৃংখলা বাহিনীর গাড়িবহর ও সদস্যদের উপর হামলা চালিয়ে বিরোধের ঘাটে তার দায় চাপাতে চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু আ’লীগ সরকার যত চেষ্টাই করুক আগামী নির্বাচনে কোন ভাবেই তাদেরকে আর মতায় আসতে দেয়া হবে না। দেশনেত্রী বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে সকল প্রকার আন্দোলন সংগ্রামে ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে থেকে  আওয়ামী সন্ত্রাসীদের নিলনকশার নির্বাচন বানচাল জনগণের অধিকার ছিনয়ে আনবে আপামোর জনতা।

ফেনীতে গত বুধবার বিকেলে যুবদল, ছাত্রদলের সাথে পুলিশ বিজিবির সংঘর্ষে যুবদল নেতা হারুনুর রশিদ নিহত হওয়ার ঘটনায় বৃহস্পতিবার হরতালের সমর্থনে সোনাগাজী পৌরশহরে উপজেলা ও পৌর যুবদল,ছাত্রদলের উদ্যোগে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন। এছাড়াও ১৮ দলীয় জোটের ডাকে দেশব্যাপি ১৩১ ঘন্টা অবরোধের শেষ দিন বৃহস্পতিবার বিকেলে অবরোধ ও হরতালের সমর্থনে পৌরশহরে পৃথক বিােভ মিছিল বের করে উপজেলা বিএনপি ও উপজেলা, পৌর যুবদল, ছাত্রদল।। বিােভ মিছিল শেষে পৌরযুবদলের সভাপতি সিরাজুল হক বিএ’র সভাপতিত্বে  এবং উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি সৈয়দ আলম ভূঁঞার পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সাবেক উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সামছুদ্দিন খোকন চেয়ারম্যান, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ চেয়ারম্যান,  পৌর বিএনপির সহ সভাপতি নুর নবী, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সিরাজ উদ্দিন দুলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক একরামুল হক, উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক খুরশিদ আলম ভূঁঞা, যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল হোসেন, পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইউএস দুলাল, উপজেলা শ্রমিক দলের সভাপতি মঞ্জুর হোসেন বাবর, উপজেলা যুবদলের সিনিয়র সহ সভাপতি মামুন পাটোয়ারী, বিপু চৌধুরী, পৌর যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক খুরশিদ আলম, ওলামা দলের সভাপতি আবদুল মতিন প্রমুখ। সমাবেশে সমস্রাধিক যুবদল, ছাত্রদলের নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করে। এ দিকে ১৮ দলীয় জোটের ডাকে ১৩১ ঘন্টা অবরোধের সমর্থনে সোনাগাজী কলেজ রোড থেকে বিােভ মিছিল বের করে উপজেলা বিএনপি। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র জামাল উদ্দিন সেন্টু, পৌর বিএনপির সভাপতি ভিপি দুলাল, উপজেলা যুবদলের সিনিয়র সহ সভাপতি বোরহান উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আহাম্মদ প্রমূখ। টানা ৬ দিনের ১৩১ ঘন্টার অবরোধ সোনাগাজীতে বড় ধরণের কোন নাশকতা ও অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই অনেকটা শান্তিপূর্ণ ভাবে পালিত হয়েছে।
ছবিতে সোনাগাজী পৌরশহরে যুবদল, ছাত্রদলের বিােভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।