কক্সবাজারে হোটেল রেস্টুরেন্টে শিশু কর্মচারীদের অমানবিকভাবে শারিরীক নির্যাতনের অভিযোগ

কক্সবাজার শহরের হোটেল রেস্টুরেন্ট গুলোতে কর্মচারী হিসেবে নিয়োগ দিয়ে শিশুদের অমানবিকভাবে শারিরীক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার রাত দেড়টার দিকে শহরের বাজারঘাটা এলাকায় খাজা ভাতঘর নামে একটি হোটেলে এঘটনা ঘটে। প্রত্যদর্শী সূত্রে জানা যায়, হোটেলটির কর্মচারী মনিরুল আলম (৯) প্রতিদিনের মত ভোর ৬ টা থেকে ৮ ঘন্টার ডিউটি শেষ করে বিশ্রাম নিতে গেলে উক্ত হোটেলের মালিক ফজলুল হক (৪৫) জোরপূর্বক রাতের দেড়টা/২টা পর্যন্ত কাজ করতে বাধ্য করে। শিশুটি ওই অবস্থায় কাজ করতে অপারগতা প্রকাশ করলে হোটেলটির মালিক ফজলুল হক (৪৫), ম্যানেজার মুবিনুল হক (২৭) ও অপর কর্মচারী জুবাইর (২৫) মিলে বেদম মারধর করে।

এব্যাপারে খাজা ভাতঘরের স্বত্ত্বাধিকারী ফজলুল হকের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি ঔদ্যত্ব প্রকাশ করে জানান, হোটেল যতণ খোলা থাকবে ততণ কাজ করতে হবে। প্রয়োজনে টানা ২৪ ঘন্টা কাজও করতে হবে। আমার কর্মচারীকে আমি যতখুশি মারবো আপনারা বলার কে, সংবাদকর্মীদের এমন পাল্টা প্রশ্নও করেন তিনি।

এঘটনায় শিশুটির পিতা দিনমজুর নজির আহমদ(৬০) জানান, পেটের দায়ে ছেলেকে পরের কাছে কাজ করতে দিয়েছি। তাই বলে জোরপূর্বক অতিরিক্ত সময় কাজ করাতে এভাবে শিশুটিকে মারধর করে শারিরীক নির্যাতন চালাবে কেন।
এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে শিশুটির অভিভাবক।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।