নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে লক্ষ্মীপুরে যুবদল নেতাসহ নিহত ৫

লক্ষ্মীপুরে অবরোধ চলাকালে র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিবির গুলিতে জেলা যুবদলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ জুয়েলসহ অন্তত পাঁচজন নিহত হয়েছেন।

নিহত অন্যরা হলেন- লাহরকান্দি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মাহবুব, বিএনপিকর্মী সুমন, কলেজছাত্র শিহাব। নিহত একজনের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি।

এ সময় পুলিশ গুলিবিদ্ধ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন সাবুসহ ৪ জনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় জেলায় শনিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিয়েছে যুবদল।

১৮ দলীয় জোটের ডাকা অবরোধের ৫ম দিন বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন সাবুর বাসভবনে অজ্ঞাত দুষ্কৃতকারীরা হামলা ও অগ্নিসংযোগ করে।

এর প্রতিবাদে বিএনপি ও জামায়াত-শিবির সকাল ৭টার দিকে শহরের উত্তর তেমুহনী এলাকায় লাঠি নিয়ে মিছিল বের করার চেষ্টা করে। তখন র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিবি তাদের বাধা দেয়।

মিছিলকারীরা তখন কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এরপরই পুলিশ মিছিলকারীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। এতে অন্তত ৩০ জন গুলিবিদ্ধ হয়। এর মধ্যে যুবদলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ জুয়েল ঘটনাস্থলেই মারা যান।

জুয়েল পৌরসভার সমসেরাবাদ এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে বলে জানা গেছে। পরে পুলিশ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকসহ গুলিবিদ্ধ ৪ জনকে আটক করে।

বর্তমানে পরিস্থিতি উত্তপ্ত অবস্থায় রয়েছে। পুলিশ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকসহ ৪ জন আটক হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।