বিএনপি জামায়াত স্বাধীনতার পরে রাজনীতি বিশ্বাস করে না

১৮ দলীয় জোটের ডাকা ৭২ ঘন্টা রাজপথ, রেলপথ ও নৌপথ অবরোধের দ্বিতীয় দিন কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোডে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল হাই বাবলু নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা অবরোধ বিরোধী বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। মিছিলটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। অবরোধ বিরোধী সমাবেশে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল হাই বাবলু বলেন, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার পরে রাজনীতিতে বিশ্বাসী আওয়ামী লীগ। বিএনপি-জামায়াত স্বাধীনতার বিশ্বাস করে না বিধায় তারা বিজয়ের মাসেও গাড়িতে আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করে তারা। যারা মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতাকে বিশ্বাস করে তারা কখনো মানুষ হত্যার রাজনীতি করতে পারে না। জামায়াত-শিবির ২৫ ডিসেম্বরের পর সারাদেশে হামলার হুমকিকে প্রত্যাখান করে ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ সহ দলের অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা জামায়াতের  নৈরাজ্যের মোকাবেলায় প্রস্তুত বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন। এ দেশের জনগণ  যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রেখে ১৮ দলীয় জোটের অবরোধ প্রত্যাখান করেছে। যারা হরতাল অবরোধের নামে দেশের মানুষকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করছে তাদেরকে রাজপথে থেকে প্রতিহত করার ঘোষণা দেন। বুধবার  দুপুরে সদর দক্ষিণ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল হাই বাবলুর নেতৃত্বে বের হওয়া অবরোধ বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন,  উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিটি কাউন্সিলর আলহাজ্ব আব্দুল মালেক ভূঁইয়া, মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক মনির মৈশান, কৃষকলীগ নেতা ভাষা সৈনিক আলী তাহের মজুমদার,  উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আলহাজ্ব আব্দুল কাদের মজুমদার বুলু, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মাসুদ রানা, মাহাবুব মজুমদার, বিজয়পুর ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মোস্তফা হোসেন বাচ্চু, আওয়ামী লীগ নেতা মফিজুল ইসলাম, ফরিদ, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তার, বিজয়পুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি সুলতান মেম্বার, সালাহ উদ্দিন আহম্মেদ, অহিদুর রহমান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবলীগ সভাপতি সাইফুদ্দিন পাপ্পু, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বুলবুল, চৌয়ারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম খোকন,  বিজয়পুর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবির, আওয়ামী লীগ নেতা জামাল পোদ্দার, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মহানগর যুবলীগ নেতা শফিউল আজম শফি,  উপজেলা যুবলীগ নেতা মাস্টার কামাল, মহানগর যুবলীগ নেতা আজাদ হোসেন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সামসুল ইসলাম আবাদ, উপজেলা যুবলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন, মনির মৈশান, চৌয়ারা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক খোরশেদ আলম, মহানগর যুবলীগ নেতা জুয়েল মজুমদার, জহিরুল ইসলাম, বিজয়পুর ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক মো: মনির হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক মিজানুর রহমান,   মহানগর ছাত্রলীগ নেতা দুলাল হোসেন অপু,  মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আব্দুস সাত্তার, ছাত্রলীগ নেতা করিম, হানিফ মিয়া দুলাল, নাজমুল, বিজয়পুর স্বেচ্ছাসেবকলীগে আহবায়ক কামাল হোসেন, মহানগর যুবলীগ নেতা জহিরুল ইসলাম বি.এ, আশিকুর রহমান, মিজানুর রহমান, যুবলীগের হালিম,  বিশ্বরোড শাখা ছাত্রলীগ নেতা আনিস,  মহানগর স্বেচ্ছসেবকলীগ আশিক মজুমদার, সঞ্চয় দত্ত,  হেলাল মোস্তফা, কাজী হোসেন, রিপন, চৌয়ারা ছাত্রলীগের আহবায়ক কাজী বোরহান, যুগ্ম আহবায়ক হাবিবুর রহমান,  বারপাড়া ছাত্রলীগের আহবায়ক সাওন, মোতালেব হোসেন,  ছাত্রলীগের হোসেন, পিয়াস, রিপন, রিয়াজ, সুজন প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।