রায়পুরে জামায়াত নেতাদের জবর দখল থেকে জমি উদ্ধার

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর পৌর শহরের মধুপুর গ্রামে জামায়াত নেতাদের পরিচালিত আইডিয়াল সিটি নামে একটি আবাসন কোম্পানীর  নাম ব্যবহার করে দীর্ঘ সাত বছর ধরে জবর দখল করে রাখা  ২০ শতাংস জমি  উদ্ধার হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত  ফরজন আলী ভূঁইয়া নামের ব্যবসায়ী আদালতের মাধ্যমে  তার  জায়গাটি ফিরে পেলেন। কিন্তু ওই জায়গাটি ফিরে পেয়ে তাতে টিনের বেস্টুনি দিয়ে কলাগাছের বাগান করেন। রাতে দুবৃর্ত্তরা বেস্টনী কুপিয়ে বাগানের কলা গাছ কেটে ফেলেন।  এঘটনায় ফরজন আলী শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর)  রাতে পুলিশ সুপারকে জানান ও থানায় অভিযোগ করেন।
ব্যবসায়ী ফরজন আলী জানান, তিনি রায়পুর পৌরসভার ১৭ নং মধুপুর মৌজার ৭৪ খতিয়ানে ৩৩৮ নং দাগে ফুফু ও জেঠাত ভাইদের কাছ থেকে ৪০ শতাংশ জমি খরিদ সুত্রে মালিক হন। ওই জমি থেকে ২০ শতাংশ জমি উপজেলা জামায়াতের আমির হাবিবুর রহমান মিন্টু, আব্দুল আলী বাসার ও মোঃ রাসেলসহ কয়েকজন তাদের পরিচালিত আইডিয়াল সিটি নামের একটি আবাসন কোম্পানীর নাম দিয়ে বায়না চুক্তি করে। এরই মাঝে ওই জমির আশেপাশে কয়েক জনের কাছ থেকে ২ একর জমি এভাবে বায়না চুক্তি করেন তারা। কিন্তু জমি রেজিস্ট্রি না করে প্রতারণার মাধ্যমে ওই জমিতে আইডিয়াল স্কুল প্রতিষ্ঠা করে দখলে নেন সুচতুর জামায়াত নেতারা। এঘটনায় তিনিসহ ২০ অংশিদার আদালতে পৃথক মামলা করলে ৭ বছর পর তিনি তার জমিটি উদ্ধার করেন।
যোগাযোগ করা হলে উপজেলা জামায়াতের আমির হাবিবুর রহমান মিন্টু বলেন, ফরজন আলীসহ তার ৪ ভাই ও তিন বোনের কাছ থেকে তিন দাগে ৪০ শতাংশ জমি ক্রয় করি। কিন্তু ফরজন আলী তার ভাগিনা বেলালের কাছে ৭ শতাংশ জমি বিক্রি কওে আবার আমাদের কাছে ১০ শতাংশ জমি ৪ লক্ষ টাকা নিয়ে বায়না করেন। প্রতারণার ঘটনা জানতে পেওে ওই টাকা ফেরত চাইলে ফরজন আলী আরো ৮ লাখ টাকা দাবি করেন। এঘটনায় আমরা টাকা ফেরত চেয়ে আদালতে মামলা করেছি। দেশের বর্তমান পরিস্থিতির সুযোগে ফরজন আলী তার লোকদের নিয়ে জোরপূর্বক জমিটি দখলে নিয়ে নেন।
রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রূপক কুমার সাহা বলেন, এ ঘটনায় ফরজন আলী ভূইয়া ও আইডিয়াল সিটি আবাসন কোম্পানী কর্তৃপ পৃথক অভিযোগ করেছেন । তা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।